রবিবার, ০৪ জুন ২০২৩

শিরোনাম

অপহরণের তিন দিন পর রাঙামাটি থেকে উদ্ধার প্রবাসী হারুন

রবিবার, অক্টোবর ৯, ২০২২

প্রিন্ট করুন

রাঙ্গুনিয়া, চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম জেলার রাঙ্গুনিয়া উপজেলা থেকে সিটিতে যাওয়ার পথে অপহরণের শিকার হওয়া প্রবাসী মো. হারুন সিকদারকে (৪৫) তিন দিন পর উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) রাত দশটায় কোতোয়ালি থানা পুলিশের সহযোগিতায় রাঙামাটি জেলার কাঁঠালতলি এলাকা থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়। উদ্ধার অভিযানে ছিলেন রাঙ্গুনিয়া-রাউজান সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার মো. আনোয়ার হোসেন শামীম ও দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া থানা পুলিশ।

শুক্রবার (৭ অক্টোবর) দুপুরে স্বজনদের কাছে হারুন সিকদারকে হস্তান্তর করেছে দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া থানা পুলিশ। এ ঘটনায় জড়িত অপহরণকারীর কাউকে ধরতে পারে নি পুলিশ।

জানা যায়, উপজেলার সরফভাটা ইউনিয়নের পূর্ব সরফভাটার আট নম্বর ওয়ার্ডের সিকদার পাড়া গ্রামের ডাক্তার আমিন শরীফ সিকদারের প্রবাস ফেরত ছেলে হারুন সিকদার মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) রাত আটটার দিকে চট্টগ্রাম শহরের উদ্দেশ্যে গ্রামের বাড়ি থেকে বের হন। বের হওয়ার ২-৩ ঘন্টা পর পরিবার থেকে তার মোবাইলে কল করলে সংযোগ বিচ্ছিন্ন পাওয়া যায়। এর থেকে ধারণা করা হচ্ছে ২-৩ ঘন্টার মধ্যেই অপহরণকারীরা হারুনকে অপহরণ করেছে। পরে হারুনের কোন খোঁজ না পেয়ে রাতেই দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করে তার পরিবার।

এ দিকে, একই দিন রাত ১১টায় ৫০ হাজার টাকা না পাঠালে আমাকে তারা মেরে ফেলবে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ম্যাসেঞ্জারে হারুনের এমন একটি ভয়েস ম্যাসেজ আসে পরিবারের কাছে। হারুনকে ফিরে পাওয়ার আশায় বুধবার (৫ অক্টোবর) অপহরণকারীদের কয়েকটি মোবাইলে নগদের মাধ্যমে মুক্তিপণের ৫০ হাজার টাকাও পাঠায় পরিবার। তবে টাকা পাঠানোর পরও হারুনকে ফিরে না পেয়ে থানা ও সহকারি পুলিশ সুপার রাঙ্গুনিয়া-রাউজান সার্কেলর দ্বারস্থ হয়ে বিষয়টি জানান হারুনের পরিবার। পুলিশ আধুনিক প্রযুক্তির সহায়তায় বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) রাত দশটার দিকে হারুন সিকদারকে অক্ষতবস্থায় উদ্ধার করে।

এ বিষয়ে দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ওবায়দুল ইসলাম বলেন, ‘অপহৃত প্রবাসী হারুন সিকদারকে উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া থানায় মামলা করা হয়েছে। ঘটনায় জড়িত অপহরণকারী চক্রকে গ্রেফতারে পুলিশের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।’