মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪

শিরোনাম

অস্ত্র ব্যবসায়ে আধিপত্য যুক্তরাষ্ট্রের

সোমবার, ডিসেম্বর ৪, ২০২৩

প্রিন্ট করুন

ওয়াশিংটন ডিসি, যুক্তরাষ্ট্র: পৃথিবীর শীর্ষ ১০০ অস্ত্র প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান গেল বছর ৫৯৭ বিলিয়ন ডলারের অস্ত্র ও সামরিক পরিষেবা বিক্রি করেছে। আর এ ব্যবসায়ে নিজেদের শক্তিশালী অবস্থান ধরে রেখেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। সোমবার (৪ ডিসেম্বর) স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইনস্টিটিউটের (এসআইপিআরআই) প্রকাশিত প্রতিবেদনের বরাতে এ তথ্য জানিয়েছে রাশিয়ার রাষ্ট্রনিয়ন্ত্রিত সংবাদ মাধ্যম আরটি।

এই ওয়াচডগের তথ্য বলছে, ‘গেল বছর যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানিগুলোর সামগ্রিক আয় কমে গেলেও, পৃথিবীর অস্ত্র ব্যবসায়ে আধিপত্য ছিল তাদেরেই।’

শীর্ষ ১০০ অস্ত্র কোম্পানির সম্মিলিত পরিসংখ্যান অনুসারে, বছর ব্যবধানে এসব কোম্পানির ব্যবসায় তিন দশমিক ৫ শতাংশ কমেছে। কিন্তু, এটি এখনো ২০১৫ সালে যে পরিমাণ ব্যবসায় হয়েছিল, তার থেকে ১৪ শতাংশ বেশি। এর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানিগুলোর সম্মিলিত ব্যবসায় সাত দশমিক নয় শতাংশ কমে ঠেকেছে ৩০২ বিলিয়ন ডলারে। তবে, তা সত্ত্বেও অস্ত্র ব্যবসায়ে আধিপত্য ধরে রেখেছে যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানিগুলোই। কেননা, ২০২২ সালে অস্ত্র ব্যবসায় থেকে অর্জিত আয়ের ৫১ শতাংশই পকেটে পুরেছে তারা। তাছাড়া, পৃখিবীর শীর্ষ ১০০ অস্ত্র প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৪২টিই হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের।

এ দিকে, তালিকা অনুসারে, ২৬টি ইউরোপীয় অস্ত্র প্রস্তুতকারক কোম্পানির আয় সামান্য বেড়েছে। গেল বছর তাদের আয় শূন্য দশমিক নয় শতাংশ বেড়ে ঠেকেছে ১২১ বিলিয়ন ডলারে।

এসআইপিআরআইয়ের তথ্য বলছে, ‘যুক্তরাষ্ট্রের প্রধান অস্ত্র উৎপাদকদের রাজস্ব কমে যাওয়ার প্রভাব পড়ছে বৈশ্বিক অস্ত্র ব্যবসায়ে। তাছাড়া, এই খাতে প্রভাব পড়েছে করোনা মহামারিও। কারণ, এতে করে সরববরাহ ব্যবস্থা বাধাগ্রস্ত হওয়ার পাশাপাশি শ্রম ঘাটতিও দেখা দিয়েছে। ’

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‘ইউক্রেন-রাশিয়া সংঘাত ও বৈশ্বিক ভূ-রাজনৈতিক উত্তেজনার কারণে গেল বছর অস্ত্রের চাহিদা ব্যাপকভাবে বেড়ে গিয়েছিল। কিন্তু, এই চাহিদার তুলনায় বৈশ্বিক অস্ত্র উৎপাদন অনেকটাই পিছিয়ে রয়েছে। তাছাড়া, অনেক দেশই গেল বছরের শেষের দিকে অস্ত্র ও সামরিক পরিষেবার জন্য অর্ডার দিয়েছে।’

তবে, গে?ল বছর এশিয়া ও মধ্যপ্রাচ্যের অস্ত্র প্রস্তুতকারকদের আয় উল্লেখযোগ্য হারে বৃদ্ধি পেয়েছে বলে উল্লেখ করেছে এসআইপিআরআই। যা তাদের কম সময়ে মধ্যে অধিক মাত্রায় চাহিদার বিপরীতে সাড়া দেয়ার সক্ষমতার নির্দশন।

এ দিকে, এসআইপিআরআইয়ের শীর্ষ ১০০ অস্ত্র প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠানের মধ্যে মাত্র দুইটি রাশিয়ান কোম্পানি জায়গা করে নিয়েছে। তারা হচ্ছে রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত প্রতিষ্ঠান রসটেক এবং ইউনাইটেড শিপবিল্ডিং করপোরেশন। তাদের মোট আয় বছর ব্যবধানে ১২ শতাংশ কমেছে। গেল বছর তাদের মোট আয় ছিল ২০ দশমিক আট বিলিয়ন মার্কিন ডলার।