রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪

শিরোনাম

আইজিপির শর্তসাপেক্ষে মার্কিন ভিসা দেশের জন্য অবমাননাকর

শনিবার, আগস্ট ২৭, ২০২২

প্রিন্ট করুন

ঢাকা: জাতিসংঘ পুলিশ সামিটে অংশ নেয়ার জন্য পুলিশের মহা পরিদর্শকের (আইজিপি) শর্তসাপেক্ষে মার্কিন ভিসা পাওয়া দেশের জন্য অবমাননাকর বলেও মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শনিবার (২৭ আগস্ট) খালেদা জিয়ার গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এ মন্তব্য করেন মির্জা ফখরুল।

এ সময় মির্জা ফখরুল বলেন, ‘সরকার জাতিসংঘকে ডেলিগেশনের তালিকা দিয়ে ইচ্ছা করেই দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করেছে। আমরা মনে করি, আইজিপির এ ধরনের শর্তসাপেক্ষে ভিসা প্রাপ্তি বাংলাদেশের জন্য অবমাননাকর। সরকার এ ধরনের দায় দায়িত্বহীন ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণের কারণে আন্তর্জাতিক সম্পর্ককে ঝুঁকির মধ্যে ফেলছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘অবৈধ আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতাকে নিরঙ্কুশ করার লক্ষ্যে বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের গুম, খুন, বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের মত ভয়ংকর মানবাধিকার লঙ্ঘনের নির্দেশদাতাদের একজন বেনজীর আহমেদকে এ তালিকাভুক্ত করে মানবাধিকার লঙ্ঘনকারীদের বৈধতা দেয়ার চেষ্টা করেছে।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘বাংলাদেশে গুম, খুন ও বিনা বিচারের হত্যার ভয়ংকর কর্মকাণ্ডের জন্য র‍্যাব ও র‍্যাবের সাত কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছিল যুক্তরাষ্ট্র। এখন জাতিসংঘের পুলিশ প্রধানদের সম্মেলনে বাংলাদেশের ডেলিগেশনে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর সাথে বেনজীর আহমেদের নাম রয়েছে। এ সম্মেলনে যোগ দেয়ার জন্য পুলিশের মহাপরিদর্শক বেনজীর আহমেদকে যুক্তরাষ্ট্র শর্তসাপেক্ষে ভিসা দেয়ায় জনগণের মধ্যে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়েছে।’

বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের সাথে জাতিসংঘের ১৯৪৭ সালের চুক্তি অনুযায়ী, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র কর্তৃক নিষেধাজ্ঞা প্রাপ্ত কোন ব্যক্তি শুধুমাত্র জাতিসংঘের সুনির্দিষ্ট সম্মেলনে যোগ দিতে পারবেন ও তার অবস্থান সীমিত থাকবে জাতিসংঘ প্রাঙ্গণে।’

মির্জা ফখরুল আরো বলেন, ‘সরকার বিএনপিসহ দেশের প্রায় সব গণতান্ত্রিক দলের অসংখ্য নেতা-কর্মীকে গুম করেছে, ক্রসফায়ারে হত্যা করেছে, বিনা বিচারে গ্রেফতার করে নির্যাতন করেছে। দেশে কোন গণতান্ত্রিক পরিবেশ নেই, মিটিং মিছিল করার কোন অধিকার নেই, এমনকি কোন সমাবেশ পর্যন্ত করতে দেয় না। গণ মাধ্যমগুলোর উপর একটা সেলফ সেন্সরশিপে বাধ্য করা হয়েছে।’

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আব্দুল মঈন খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু ও ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, জাতিসংঘ পুলিশ সামিটে অংশ নিতে আইজিপি বেনজীর আহমেদকে দুই দিনের ভিসা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে এতে জুড়ে দেয়া হয়েছে নানা শর্ত। গণ মাধ্যমের খবর বলছে, ‘জাতিসংঘের নির্ধারিত কর্মসূচি ছাড়া অন্য কোন কার্যক্রমে অংশ নিতে পারবেন না আইজিপি। এছাড়া বেনজীর জাতিসংঘের সম্মেলন ছাড়া সামাজিক, রাষ্ট্রীয় বা সরকারি-বেসরকারি কোন অনুষ্ঠানেও যোগ দিতে পারবেন না।

আগামী ৩১ আগস্ট থেকে ১ সেপ্টেম্বর দুই দিনের পুলিশ সামিটে অংশ নেবেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানের নেতৃত্বে ছয় সদস্যের প্রতিনিধি দল।

আইজিপি ছাড়া অন্য সদস্যরা হলেন- স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের যুগ্ম সচিব আবু হেনা মোস্তফা জামান, মন্ত্রীর একান্ত সচিব (উপসচিব) মু. আসাদুজ্জামান, অতিরিক্ত পুলিশ মহাপরিদর্শক (অতিরিক্ত ডিআইজি) নাশিয়ান ওয়াজেদ ও সহকারী পুলিশ মহা পরিদর্শক (এআইজি) মোহাম্মদ মাসুদ আলম।

এর আগে গত বছরের ১০ ডিসেম্বর বেনজীর আহমেদসহ র‍্যাবের সাবেক ও বর্তমান সাত কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয় মার্কিন পররাষ্ট্র ও রাজস্ব বিভাগ। বেনজীর আহমেদ আগে র‌্যাবেই ছিলেন। বাহিনীটির সাবেক প্রধান হিসেবে তিনি নিষেধাজ্ঞায় পড়েন।