সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪

শিরোনাম

আব্দুল মোনেম গ্রুপের আমদানি-রপ্তানি স্থগিত; ব্যাংক হিসাব জব্দ

বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২৫, ২০২৪

প্রিন্ট করুন

ঢাকা: বন্ড সুবিধার অপব্যবহার করে কর ফাঁকি দেয়া ৬৭৪ কোটি ৩৫ লাখ টাকা পরিশোধ না করায় আব্দুল মোনেম সুগার রিফাইনারিসহ ব্যবসায়িক গ্রুপটির সব প্রতিষ্ঠানের আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম স্থগিতের নির্দেশ দিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। একইসঙ্গে প্রতিষ্ঠানটির চলতি একাউন্টসহ অন্য সব একাউন্ট অপরিচালনযোগ্য বা জব্দ করতে সংশ্লিষ্ট ব্যাংকগুলোকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) ঢাকা কাস্টমস বন্ড কমিশনারেট (দক্ষিণ) অফিস আদেশে এ নির্দেশ দিয়েছে। কমিশনারেটের একজন জ্যেষ্ঠ বন্ড কর্মকর্তা সংবাদ মাধ্যমকে অফিস আদেশের ব্যাপারটি নিশ্চিত করেছেন।

আদেশে দেশের সব সমুদ্র, স্থল ও বিমানবন্দরকে প্রতিষ্ঠানটির মালিকানাধীন সব প্রতিষ্ঠানের আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম বন্ধ করার পাশাপাশি সব বিজনেস আইডেনটিফিকেশন নম্বর বা বিআইএন স্থগিত রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। বিআইএন স্থগিত রাখার অর্থ হচ্ছে প্রতিষ্ঠানটির আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যাওয়া। বন্দরে যেসব পণ্য এরমধ্যে আমদানি হয়েছে, তার শুল্কায়ন কার্যক্রমও বন্ধ থাকবে। একইভাবে গ্রুপটির প্রতিষ্ঠানগুলোর পাশাপাশি এর মালিকানাধীন ও ব্যবস্থাপনাধীন সব প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক একাউন্ট জব্দ করার অর্থ প্রতিষ্ঠানটি এসব একাউন্ট থেকে কোন অর্থ উত্তোলন বা লেনদেন করতে পারবে না।

অফিস আদেশে বলা হয়, ‘শুল্ক পরিশোধ না করে ৫২৮ টন অপরিশোধিত চিনি কারখানা থেকে অবৈধভাবে অপসারণ করে এক হাজার ২০৫ কোটি ৫২ লাখ টাকার কর ফাঁকি দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। ছয় কিস্তিতে এসব অর্থ পরিশোধের নির্দেশনা দেয়া হলে প্রতিষ্ঠানটি ৫৩৩ কোটি টাকা পরিশোধ করে ও বাকি ৬৭৪ কোটি ৩৫ লাখ টাকা এখন পর্যন্ত জমা দেয়নি।’

দেশের ১৯টি শুল্ক স্টেশনসহ রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুারো (ইপিবি) ও সংশ্লিষ্ট ব্যাংকে নির্দেশনা দিয়ে আদেশপত্রে বলা হয়, ‘কাস্টমস অ্যাক্ট ১৯৬৯ এর সেকশন ২০২ (১,বি) অনুযায়ী, সরকারি পাওনা আদায় না হওয়া পর্যন্ত ওই প্রতিষ্ঠান অথবা তার সহযোগী প্রতিষ্ঠান অথবা একই মালিকানাধীন বা ব্যবস্থাপনাধীন প্রতিষ্ঠানের মালামাল খালাস স্থগিত থাকবে। পাশাপাশি, বন্ড সুবিধায় আনা সুগার রিফাইনারি থাকা সব ধরনের অপরিশোধিত চিনি বাজারজাতকরণ ও সরবরাহ বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে সংশ্লিষ্ট বন্ড কর্মকর্তাদের।