সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪

শিরোনাম

ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রদূতের সাথে আইবিএফবির মত বিনিময়, দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের ওপর গুরুত্বারোপ

সোমবার, জানুয়ারী ৮, ২০২৪

প্রিন্ট করুন

ঢাকা: ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রদূত হেরু হরতান্তো সুবোলো সম্প্রতি বাংলাদেশ ও ইন্দোনেশিয়ার মধ্যে দ্বিপাক্ষিক ব্যবসায়িক সম্পর্ক উন্নতিকরণের বিষয়ে ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস ফোরাম অব বাংলাদেশের (আইবিএফবি) পরিচালনা পর্ষদ ও প্রধান কর্মকর্তাদের সঙ্গে মত বিনিময় করেছেন। তিনি এ সংক্রান্ত আলোচনা সভায় যোগ দিতে আইবিএফবি অফিস পরিদর্শন করেছেন।

সভায় রাষ্ট্রদূত বলেন, ‘তিনি প্রায় দুই বছর ধরে বাংলাদেশে আছেন এবং এই দুই দেশের মধ্যে বহু মিল খুঁজে পেয়েছেন। অর্থাৎ, উভয়ই মুসলিম দেশ, খাদ্য ও সংস্কৃতিতেও বহু মিল আছে। কিন্তু, চ্যালেঞ্জও আছে, বহু ইন্দোনেশিয়ান বাংলাদেশকে চেনেন না ও বহু বাংলাদেশি ইন্দোনেশিয়া সম্পর্কে জানেন না। তিনি ইন্দোনেশিয়ায় বাংলাদেশের পক্ষে প্রচারের চেষ্টা করছেন’

তিনি বাংলাদেশী ব্যবসায়ী সম্প্রদায়কে পর্যটনের জন্য ইন্দোনেশিয়া ঘুরে দেখার অনুরোধ জানান।

হেরু হরতান্তো সুবোলো ইন্দোনেশিয়ার বাজারে বাংলাদেশের পণ্য রপ্তানি এবং বাংলাদেশের বাজারে ইন্দোনেশিয়ার পণ্য আমদানি, আন্তর্জাতিক ফোরামে সহযোগিতা এবং দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ও বিনিয়োগের ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

বাংলাদেশ ইন্দোনেশিয়ার ব্যবসায়িক অংশীদার হতে পারে বলেও মতামত দেন তিনি।

‘ইন্দোনেশিয়া ২০২১ সালে বাংলাদেশে রপ্তানি করে এমন পণ্যের মধ্যে ছিল পাম অয়েল (এক দশমিক ৩৬ বিলিয়ন ডলার), কয়লা ব্রিকেটস (৪৩২ মিলিয়ন ডলার) ও সিমেন্ট (১৬৬ মিলিয়ন ডলার)। বাংলাদেশ পাটের সুতা, বুনা টি-শার্ট, নারীদের নন-নিট স্যুট রপ্তানি করে ও রপ্তানির পরিমাণ ঊর্ধ্বগামী। ইন্দোনেশিয়া বাংলাদেশী ওষুধ, কৃষিপণ্য, পোল্ট্রি, পাট ও চামড়াজাত পণ্য ও জুতার জন্য একটি বড় বাজার হতে পারে।’

আইবিএফবির সভাপতি হুমায়ুন রশীদ আইবিএফবির ভূমিকা ও কার্যাবলী দেখান।

সভায় আইবিএফবির কর্তাদের মধ্যে হাফিজুর রহমান খান, এমএস সিদ্দিকী, লুৎফুন্নিসা সৌদিয়া খান, মুহাম্মদ আবদুল মজিদ, সৈয়দ মুস্তাফিজুর রহমান, রাজীব হায়দার, উৎপল কুমার দাস, মোজাহাঙ্গীর কবির (শিমুল), লিয়াজোঁ কমিটি, এসএম ওয়াহিদুজ্জামান বাবু, মতিউর রহমান উপস্থিত ছিলেন।