মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪

শিরোনাম

ইহুদি বিদ্বেষ/অবশেষে হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেসিডেন্ট ক্লাউডিন গের পদত্যাগ

বুধবার, জানুয়ারী ৩, ২০২৪

প্রিন্ট করুন
ক্লাউডিন গে

ম্যাসাচুসেটস, যুক্তরাষ্ট্র: অবশেষে ‘ইহুদি বিদ্বেষ’ আর ‘চুরি’ বিতর্কের জেরে পদত্যাগ করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস অঙ্গরাজ্যের হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যায়ের প্রেসিডেন্ট ক্লাউডিন গে। গাজা যুদ্ধকে কেন্দ্র করে ক্যাম্পাসে ইহুদি বিদ্বেষ বাড়া নিয়ে মন্তব্যের পর থেকে তার বিরুদ্ধে গবেষণাপত্রে চুরি করার অভিযোগ ওঠে। বিভিন্ন বিতর্কের এক পর্যায়ে মঙ্গলবার (২ জানুয়ারি) তিনি পদত্যাগ করেন।

গেল ডিসেম্বরে ক্যাম্পাসে ইহুদি বিদ্বেষ বাড়ার ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদের শিক্ষা সংক্রান্ত কমিটিতে শুনানি হয়। শুনানিতে করা মন্তব্যের জেরে ক্লাউডিন গে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েন। একই কারণে যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব পেনসিলভানিয়ার প্রেসিডেন্ট এলিজাবেথ ম্যাগিল ও ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির প্রেসিডেন্টও সমালোচনার মুখোমুখি হন।

শুনানিতে তাদের সবার নিকট জানতে চাওয়া হয়, শিক্ষার্থীরা তাদের ক্যাম্পাসে যে ‘ইহুদিদের গণহত্যার’ ডাক দিয়েছেন, তাতে তারা আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন কি-না।

এ প্রশ্নে তারা কেউই সুনির্দিষ্ট জবাব দেননি। এর তীব্র প্রতিক্রিয়ায় ৭৪ আইন প্রণেতা ইউনিভার্সিটি অব পেনসিলভানিয়া, হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটি ও ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির প্রেসিডেন্টদের দ্রুত অপসারণের দাবি জানিয়ে চিঠি লিখেন।

এ প্রেক্ষিতে এর আগে ইউনিভার্সিটি অব পেনসিলভানিয়ার প্রেসিডেন্ট এলিজাবেথ ম্যাগিলও পদত্যাগ করেছেন।

এ দিকে, ক্লাউডিন গের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠেছে, তিনি তার একাডেমিক গবেষণাপত্রে ঠিকঠাক সোর্সের নাম লেখেননি। এ কারণে গবেষণায় তার বিরুদ্ধে চুরির অভিযোগ করা হয়। কেমব্রিজের প্রভাবশালী হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম কৃষাঙ্গ প্রেসিডেন্ট হয়ে ক্লাউডিন গে ইতিহাস সৃষ্টি করেছিলেন।

বলে রাখা ভাল, গেল ৭ অক্টোবর ইসরায়েলে হামলা চালায় ফিলিস্তিনি স্বাধীনতাকামী সংগঠন হামাস। প্রতিশোধ হিসেবে ওই দিন থেকেই গাজায় নির্বিচারে হামলা শুরু করে দেশটি। এ ঘটনার পর থেকে যুক্তরাষ্ট্রের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ক্যাম্পাসে ইহুদি বিদ্বেষ ও ঘৃণামূলক অপরাধ বেড়ে গেছে।