বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

শিরোনাম

ইয়ান ফ্লোরিডার ইতিহাসে সবচেয়ে প্রাণঘাতী হতে পারে

শনিবার, অক্টোবর ১, ২০২২

প্রিন্ট করুন

ফ্লোরিডা, যুক্তরাষ্ট্র: যুক্তরাষ্ট্রের মূলভূখণ্ডে আঘাত হানা অন্যতম সবচেয়ে শক্তিশালী হারিকেন ইয়ানের তাণ্ডবে অন্তত দশ মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের ইতিহাসে এটি সবচেয়ে প্রাণঘাতী ঘূর্ণিঝড় হতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) ফ্লোরিডার উপসাগরীয় উপকূলে আঘাত হানা হারিকেনটির প্রভাবে ওই এলাকার বসতিগুলো সাগরের লোনা পানিতে ডুবে যায় এবং আটলান্টিক মহাসাগরের উপদ্বীপটির ২০ লাখেরও বেশি ঘরবাড়ি ও প্রতিষ্ঠান বিদ্যুৎবিহীন হয়ে পড়ে। খবর বিবিসি ও রয়টার্সের।

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল হারিকেন সেন্টার জানিয়েছে, ‘কিছুটা দুর্বল হওয়ার পর ইয়ানকে ক্রান্তীয় ঝড় হিসেবে চিহ্নিত করার পর এটি মহাসাগর নেমে গিয়ে ফের হারিকেনের রূপ নিয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৮ সেপ্টেম্বর) ওয়াশিংটন ডিসিতে ফেডারেল ইমার্জেন্সি ম্যানেজমেন্ট এজেন্সির (এফইএমএ) সদর দপ্তরে কথা বলার সময় প্রেসিডেন্ট বাইডেন জানান, প্রাথমিক প্রতিবেদনগুলোতে উল্লেখযোগ্য প্রাণহানির খবর এসেছে।

শার্লট কাউন্টিতে দশ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে স্থানীয় এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

ফ্লোরিডার ২৬ লাখেরও বেশি বাড়ি ও ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান বিদ্যুৎবিহীন হয়ে আছে ও কিছু এলাকা পানিতে তলিয়ে আছে। বিভিন্ন দিকে থেকে ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতির খবর আসছে। জরুরি বিভাগের কর্মীরা উপরে পড়া গাছ কেটে বিভিন্ন বাড়িতে আটকা পড়া লোকজনকে উদ্ধারের চেষ্টা করছেন।

বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) হারিকেন ইয়ান চার মাত্রার হারিকেনের শক্তি নিয়ে ফ্লোরিডার ফোর্ট মায়ার্স শহরের কাছ দিয়ে স্থলে উঠে আসে, এ সময় প্রবল ঝড়ে ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতির পাশাপাশি জলোচ্ছ্বাসে বহু এলাকা তলিয়ে যায়।

ক্যারোলাইনার পথে থাকা ঘূর্ণিঝড়টিতে এ পর্যন্ত মোট কত জনের মৃত্যু হয়েছে, তা নিশ্চিত হওয়া যায় নি। বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় সংবাদ ব্রিফিংয়ে ফ্লোরিডার গভর্নর রন ডেসান্টিস কিছু লোকের মৃত্যুর কথা স্বীকার করলেও সরকারিভাবে নিশ্চিত করার আগে নিহতের সংখ্যা অনুমান না করার বিষয়ে সতর্ক করেছেন। ‘এ হারিকেনে মৃত্যু ঘটবে, এটি পুরোপুরি নিশ্চিত ছিলাম আমরা।’ বলেছেন তিনি।

হারিকেনের তাণ্ডবে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাগুলো একটি শার্লট কাউন্টির শেরিফ দপ্তরের এক মুখপাত্র বেশ কয়েকজনের মৃত্যুর কথা নিশ্চিত করলেও নির্দিষ্ট কোন সংখ্যা উল্লেখ করেন নি।

সারাসোটা কাউন্টির কর্তৃপক্ষ ঘূর্ণিঝড়-সম্পর্কিত সম্ভাব্য দুইটি মৃত্যুর বিষয় তদন্ত করে দেখছে বলে শেরিফ দপ্তরের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন। ইয়ানের তাণ্ডব মোকাবেলার জন্য এখন প্রস্তুত হচ্ছে জর্জিয়া, সাউথ ক্যারোলাইনা ও নর্থ ক্যারোলাইনা অঙ্গরাজ্য। ফ্লোরিডার ভেতর দিয়ে এগুনোর সময় হারিকেন ইয়ান দুর্বল হয়ে পড়েছিল, তখন এটিকে ক্রান্তীয় ঝড় হিসেবে চিহ্নিত করেছিল যুক্তরাষ্ট্রের আবহাওয়া দপ্তর। কিন্তু স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) বিকাল পাঁচটার দিকে এটি আটলার্টিক মহাসাগরে নেমে যাওয়ার পর ফের শক্তি সঞ্চয় করে হারিকেনে রূপ নেয়। এ সময় এটি ঘণ্টায় একটানা ১২০ কিলোমিটার বাতাসের বেগ নিয়ে উত্তরে ক্যারোলাইনার দিকে এগিয়ে যাচ্ছিল বলে যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল হারিকেন সেন্টার জানিয়েছে।