সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪

শিরোনাম

উৎসবমুখর পরিবেশে হলো নিউইয়র্ক স্টেট, উত্তর ও দক্ষিণ সিটি বিএনপির কাউন্সিল

সোমবার, এপ্রিল ২২, ২০২৪

প্রিন্ট করুন

নিউইয়র্ক, যুক্তরাষ্ট্র: শান্তিপূর্ণ ও উৎসবমুখর পরিবেশে কাউন্সিলরদের গোপন ব্যালটে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির তিন স্তরে দলীয় কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার (২১ এপ্রিল) নিউইয়র্ক সিটির বিভিন্ন হোটেলে নিউইয়র্ক স্টেট বিএনপি, মহানগর উত্তর ও মহানগর দক্ষিন বিএনপির নেতৃত্ব নির্বাচনে এ কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়। প্রত্যক্ষভাবে এ নির্বাচনগুলো পরিদর্শন করেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য গিয়াস আহমেদ ও অন্য নেতারা।

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে তিন স্তরে বিএনপির দলীয় কাউন্সিলের মধ্যে নিউইয়র্ক স্টেট বিএনপির কাউন্সিলে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব পালন করেন কাওছার আহমেদ। নিউইয়র্ক মহানগর দক্ষিণ বিএনপির কাউন্সিলে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব পালন করেন এমলাক হোসেন ফয়সল। নিউইয়র্ক মহানগর উত্তর বিএনপির কাউন্সিলে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব পালন করেন নরুল আমিন মিয়া পলাশ।

লার্গোডিয়া ম্যারিয়ট হোটেলে অনুষ্ঠিত নিউইয়র্ক স্টেট বিএনপির কাউন্সিলে মোট ৪০ জন কাউন্সিলর ভোট দেন। এতে অলিউল্লাহ আতিকুর রহমান ২৭ ভোট পেয়ে সভাপতি নির্বাচিত হয়েছে। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি রিয়াজ আহমেদ ছয় ও আনোয়ার হোসেন পাঁচ ভোট পান। সাধারন সম্পাদক পদে সাইদুর রহমার সাঈদ ২৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন।

নিউইয়র্ক মহানগর উত্তর বিএনপির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় প্লাজা হোটেলে। এতে আহবাব চৌধুরী খোকন ২১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি ইমরান শাহ পান ১৮ ভোট। সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন ফয়েজ আহমেদ।

নিউইয়র্ক মহানগর দক্ষিণের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে লং আইল্যান্ড সিটির ফাইভ স্টার ব্যাংকুয়েট হোটেলে। এতে সেলিম রেজা ২৮ ভোট পেয়ে সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন। সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন বদিউল আলম বদি। এ নির্বাচনে তিন সভাপতির মধ্যে সর্বোচ্চ ভোট পেয়েছেন সেলিম রেজা।

নিউইয়র্ক স্টেট, নিউইয়র্ক উত্তর সিটি ও দক্ষিণ সিটিতে শান্তিপূর্ণভাবে বিএনপির কাউন্সিলের মাধ্যমে নেতৃত্ব নির্বাচিত হওয়ায় উচ্ছাস প্রকাশ করেছেন বিএনপির নেতা-কর্মী সমর্থকরা। এ দিকে, দীর্ঘ এক যুগ ধরে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির কোন দলীয় কাউন্সিল না হওয়ায় দ্রুত কমিশন গঠন করে দলীয় কাউন্সিলের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট বিএনপির কমিটি গঠনেরও দাবি জানান তারা।