রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪

শিরোনাম

ওয়েল স্টুডিও আনল মিষ্টি খাবারে শৈল্পিকতা ও আধুনিকতা

শনিবার, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২২

প্রিন্ট করুন

চট্টগ্রাম: প্রতিযোগিতামূলক বিশ্বে সবাই ছুটছে আর ছুটছে। এ ছুটে চলার মাঝে কোন উপলক্ষ পেলে তাকে রাঙিয়ে তুলতে কে না চায়? কারণ, এ বিশেষ মূহুর্তের আনন্দঘন মূহুর্ত নিরন্তর ছুটে চলার ক্লান্তিকে নিমিষেই দূর করে দেয়। বিশেষ মূহুর্ত মানে বিশেষ খাবারের আয়োজন, বিশেষ আনন্দ। সময়ের সাথে পাপ্লা দিয়ে ছুটে চলা মানুষগুলো নানা স্বাদের আইটেম তৈরি করে খাবার প্রস্তুত করার সময় পায় খুবই কম। তাই, সময় বাঁচিয়ে বিশেষ মূহুর্ত উদযাপনে চাই তৈরি খাবার। আর এ খাবারের প্রধান অনুসঙ্গ মিষ্টি জাতীয় খাবার, হাল সময়ে মিষ্টির সাথে যুক্ত হয়েছে নানা স্বাদের, কেক, দই, পেস্ট্রি ইত্যাদি। আর এসব সুস্বাদু খাবার যদি হয় শৈল্পিক শেপে, যদি হয় শৈল্পিক পরিবেশনায় ও মনোময় পরিবেশে তবে মূহূর্তগুলো হয়ে ওঠে স্বর্গীয়। সুন্দর মনোময় পরিবেশ, পরিবেশনায় শৈল্পিকতার ছোঁয়া, প্রস্তুতে স্বাস্থ্য সম্মত উপায়-শৈল্পিক আকৃতি, খেতে দেশীয় ও ভিনদেশী স্বাদের সমম্বয়ের সবই আপনি পাচ্ছেন দেশের অন্যতম শীর্ষ শিল্প পরিবার ওয়েল গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের নতুন সংযোজন ‘ওয়েল স্টুডিওতে’।

শান্ত, নিরিবিলি ও সবুজের সমারোহে ফুসফুস খ্যাত চট্টগ্রাম সিটির সিআরবি এলাকার সন্নিকটে স্টেডিয়াম পাড়ার হল টুয়েন্টি ফোরের সুবিশাল স্পেস নিয়ে নান্দনিক ডেকোরামে ‘ওয়েল স্টুডিও’র অবস্থানে গেলেই এটি বার বার টানবেই আপনাকে। গ্রাহক সেবা, মার্জিত ব্যবহার, পরিচ্ছন্ন উপস্থাপনে স্টুডিও’র সকলেই আপনাকে সন্তুষ্টি দিতে সদা তৎপর। এখানে আপনি অবাক হবেন- বিভিন্ন রকমের ডালায় সাজানো মিষ্টি, দই, কেক, চকোলেট, পেস্ট্রির সমাহার দেখে। বিয়ে, মেহেদি অনুষ্ঠান, বেয়াই আপ্যায়ন, জামাই আপ্যায়ন, বধূ বরণ ইত্যাদি ইভেন্টের জন্য ‘ওয়েল স্টুডিওতে’ বাঙালি ও পাশ্চাত্য ঘরানার সংমিশ্রণে নাজানো মিষ্টি খাবারের ডালা আপনাকে সহজেই আকৃষ্ট করবে। তাছাড়া গ্রাহক নিজের পছন্দেও সাজিয়ে নিতে পারেন নিজেদের পছন্দসই খাবারের ডালা।

ওয়েল গ্রুপের পরিচালক আসিফ হাসানের জানান, আমাদের ঐতিহ্যগত খাবার পিঠ পুলি, রসমলাই, রসগোল্লা সন্দেশের সাথে ওয়েস্টার্ণ খাবারের প্রতি গ্রাহকদের বিশেষ ঝোঁকের কথা বিবেচনায় ওয়েল স্টুডিওতে রাখছেন পেস্ট্রি, কেক, মুস ইত্যাদি মুখরোচক খাবার।

মুস সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘এটি মূলত সন্দেশ দিয়েই তৈরি। তবে চাপের সাথে ডিম, চকোলেট দিয়ে এটিকে ওয়েস্টার্ণ ডিজাইনে ইউনিক করা হয়েছে। তাই, এ খাবারে পাচ্ছেন বাংলার ঐতিহ্যগত স্বাদের সাথে আধুনিকতার ছোঁয়া। কথায় আছে, ‘আগে দর্শন ধারী, পরে গুন বিচারি’। ‘ওয়েল স্টুডিও দেখার সৌন্দর্য, স্বাদ-গুন-মানে দিচ্ছে সমান গুরুত্ব। তাই, আপনার পছন্দের তালিকার প্রথমেই রাখতে পারেন ‘ওয়েল স্টুডিও’।

যে সব পণ্য শোভা পাচ্ছে ওয়েল স্টুডিওতে: কেক, সন্দেশ, চকলেট ও দই জাতীয় বিভিন্ন খাবার পাওয়া যায়। এর মধ্যে কিছু হল- চকলেট মুস, ভ্যানিলা মুস, চকলেট বল, চকলেট সন্দেশ, মালাই কেসার নাট, আবার খাবো, নয়নতারা, চকলেট ডিলাইট, আমেজ, গন্ধরাজ সন্দেশ, আম সন্দেশ মুস, প্রাণ ভোগ, স্ট্রবেরি কাপ কেক, ভ্যানিলা কাপ কেক, ডবল চকলেট কাপ কেক, মোকা কাপ কেক, চকলেট কুকিজ কাপ কেক, রেইনবো মুস, ভ্যানিলা সন্দেশ কেক, চকলেট সন্দেশ কেক, আম কেক, চকলেট চিপস কেক, মিক্স ফ্রুট কেক, হোয়াইট চকলেট, পেস্তা কেক, মোকা পোর্স্ট্রি, স্ট্রেবেরী দই, কমলা ভোগসহ হরেক রকমের মিষ্টান্ন। এছাড়া পাউরুটি, লাড্ডুসহ আছে নানা জাতের মিষ্টিজাতীয় খাবার।

ওয়েল স্টুডিও’র অপারেশন এন্ড ব্র্যান্ড ম্যানেজার মো. আশিক উল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘পরিবেশনায় আধুনিকতা ও ভিন্নতা, গুনে ও মানে শতভাগ নিশ্চয়তা, ব্যবহার ও সেবায় শতভাগ আন্তরিকতা এবং ক্রেতা সন্তুষ্টি আমাদের প্রধান বৈশিষ্ট্য।