রবিবার, ২৬ মে ২০২৪

শিরোনাম

খলিল বিরিয়ানী হাউজ এখন জ্যামাইকায়

শুক্রবার, অক্টোবর ২১, ২০২২

প্রিন্ট করুন

নিউইয়র্ক: খলিল বিরিয়ানী হাউজের নিউইয়র্ক জ্যামাইকা শাখার উদ্বোধন করা হয়েছে। বুধবার (১৯ অক্টোবর) বিকালে জ্যামাইকার ১৬৭-২০ হিলসাইড এভিনিউতে মো. খলিলুর রহমানের মালিকানাধীন এ রেস্টুরেন্ট মিলাদ- দোয়া মাহফিল ও ফিতা কেটে বর্ণাঢ্য উদ্বোধন করা হয়।

অনুষ্ঠানে মো. খলিলুর রহমান, রাজনীতিবিদ মোর্শেদ আলম, মাজেদা উদ্দিন, মোহাম্মদ এন মজুমদার, কমিউনিটি এক্টিভিস্ট এবিএম ওসমান গনি, ফখরুল ইসলাম দেলোয়ার বক্তব্য দেন।

উদ্বোধন উপলক্ষে রেস্টুরেন্টটিতে দেখা যায়, বাঙালীসহ অন্য কমিউনিটির নানা বয়সী উৎসুক জনতার উপচেপড়া ভিড়। উদ্বোধন উপলক্ষে প্রতিষ্ঠানের তৈরি খাবার দিয়ে পাঁচ শতাধিক অতিথিকে আপ্যায়ন করা হয়।

অনুষ্ঠানে অতিথিরা বলেন, ‘ভিন্ন স্বাদ, আধুনিক মান, রুচি ও স্বাস্থ্যসম্মত নানা খাবার পরিবেশনের মাধ্যমে খলিল বিরিয়ানী হাউজ নতুন প্রজন্মসহ কমিউনিটিতে ব্যাপক সুনাম কুড়িয়েছে। প্রবাসে রেষ্টুরেন্ট ব্যবসায়ে শেফ মো. খলিলুর রহমান কমিউনিটির জন্য অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবেন।’

খলিলুর রহমান জানান, কাস্টমারদের বিপুল চাহিদার প্রতি লক্ষ্য রেখে ও প্রবাসী বাংলাদেশিদের প্রত্যাশা পূরণে খলিল বিরিয়ানী হাউজ জ্যামাইকায় শাখা খোলার সিদ্ধান্ত নিতে হয়।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, কাস্টমার ফার্স্ট’ এ প্রত্যয়ে সব স্তরের গ্রাহকদের কথা বিবেচনা করে কমিউনিটির সেবায় জ্যামাইকা শাখাটি সেভাবে সাজানো হয়েছে। ঘরোয়া নিরিবিলি পরিবেশের নতুন এ রেস্টুরেন্টটিতে এক সাথে ৫০ জন বসে খেতে পারবেন কিংবা যে কোন পার্টিও করতে পারবেন। খলিল বিরিয়ানী হাউজের প্রচলিত খাবরের পাশাপাশি ভিন্ন স্বাদের আধুনিক মান ও রুচি সম্মত নানা খাবারের সংযোজন থাকবে। প্রতিষ্ঠানটির নাম খলিল বিরিয়ানী হাউজ হলেও তার সব শাখাতেই বিরিয়ানীর পাশাপাশি বাংলাদেশী ঐতিহ্যবাহী অন্য সব খাবারই থাকছে। বিশেষ করে নতুন প্রজন্মের ছেলে-মেয়েদের খাবারের রুচির প্রতি লক্ষ্য রেখে নানা আইটেম থাকছে। সকালের নাস্তা, দুপুর ও রাতের খাবার এবং মিলাদ-মাহফিল, ইফতার, বিয়ে, জন্মদিন, পিকনিকসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানে খাবার পরিবেশন ও কেটারিংয়ে থাকছে আলাদা বৈচিত্র। জ্যামাইকা শাখাটি প্রতিদিন সকাল আটটা থেকে রাত দশটা পর্যন্ত গ্রাহকদের সেবায় খোলা থাকবে। এ রেস্টুরেন্টটিতেও ফ্রি ডেলিভারীর ব্যবস্থা রয়েছে। উদ্বোধন উপলক্ষে থাকছে বিশেষ ছাড়।