বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

শিরোনাম

চট্টগ্রামে বিশ্ব মানের উচ্চ শিক্ষার অভাব পূরণে সচেষ্ট ইডিইউ

শুক্রবার, ফেব্রুয়ারী ৩, ২০২৩

প্রিন্ট করুন

চট্টগ্রাম: ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটির (ইডিইউ) প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান বলেছেন, ‘কেবল নামে নয়, কর্মগুণে আন্তর্জাতিক মানের বিশ্ববিদ্যালয় হয়ে উঠছে ইডিইউ। বাংলাদেশে কর্মরত সব বড় প্রতিষ্ঠানকে এক মঞ্চে এনে নিজেদের শিক্ষার্থীরা ছাড়াও চট্টগ্রামের চাকরিপ্রত্যাশীদের সুযোগ করে দেয়া এরই দৃষ্টান্ত। চট্টগ্রামকে বাণিজ্যিক রাজধানী ঘোষণাকালে আমার প্রস্তাবিত ১৭ দফার একটি ছিল- এ অঞ্চলে বিশ্ব মানের উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা। সে অভাব পূরণে সর্বতোভাবে সচেষ্ট ইডিইউ।’

শুক্রবার (৩ ফেব্রুয়ারি) সকাল দশটায় ইডিইউতে আয়োজিত দুই দিনের ‘প্লেসমেন্ট ডে’র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

যুক্তরাজ্যের বেনগর ইউনিভার্সিটি ও এএইচজেড এসোসিয়েটস লিমিটেডের সহযোগিতায় আয়োজিত এ চাকরি মেলা শনিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা ছয়টায় শেষ হবে। প্রায় ৪০টি চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠান এতে অংশ নিয়েছে।

চট্টগ্রামে বসবাসরত তরুণদের ক্যারিয়ার গঠনে সহায়তা করার লক্ষ্যে চাকরিপ্রত্যাশী ও চাকরিদাতাদের এ মিলনমেলার আয়োজন করা হয়েছে। ইডিইউর শিক্ষার্থীরা ছাড়াও চাকরীপ্রত্যাশী সকলেই এতে অংশ নিতে পারছে।

বাংলাদেশে পরিচালিত ৪০টি দেশি-বিদেশি প্রতিষ্ঠানকে এক ছাদের নিচে এনে চাকরিদাতা ও প্রার্থীদের মধ্যে সরাসরি যোগাযোগ স্থাপনের পাশাপাশি ক্যারিয়ার গঠনের বিভিন্ন দিক নিয়ে প্যানেল ডিসকাশনের আয়োজন রয়েছে। এতে দেশের স্বনামধন্য ও প্রতিষ্ঠিত পেশাজীবীরা তরুণদের উন্নয়নে পরামর্শমূলক আলোচনা করছেন। বিখ্যাত স্ট্যান্ড-আপ কমেডিয়ান নাভিদ মাহবুবের সরস সঞ্চালনায় এতে আগত অতিথিরা বাংলাদেশের চাকরিবাজার ও কর্মপরিবেশ নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিএসআরএমের ম্যানেজিং ডিরেক্টর আমির আলী হুসেইন বলেন, ‘বর্তমান সময়ে সবকিছুই হাতের মুঠোয় চলে এসেছে। এতে আমাদের শেখার জন্য সময় কমে গেছে। যে কোন কিছু শিখতে, অভিজ্ঞতা অর্জনে সময় প্রয়োজন। ফলে তরুণদের আরো ধৈর্যশীল হতে হবে।’

জুনকস কনসাল্টিংয়ের সহপ্রতিষ্ঠাতা মতিউল ইসলাম নওশাদ বলেন, ‘আজকের দিনে সবাই প্রযুক্তি ও ক্যারিয়ারের প্রয়োজনীয় তত্ত্বই পড়ছে। পাশাপাশি অবশ্যই আমাদের লিবারেল আর্টস-সোশ্যাল সায়েন্সও পড়তে হবে। বিবিএর পর এমবিএ না করে এসবের উপর মাস্টার্স করা উচিৎ। এতে কর্মদক্ষতার পাশাপাশি মূল্যবোধ-জীবনবোধের বিকাশ ঘটে; মানুষ হিসেবে উন্নত হয়ে ওঠা যায়।’

ইডিইউর প্রতিষ্ঠাতা ভাইস চেয়ারম্যান সাঈদ আল নোমান বলেন, ‘প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নে দক্ষ কর্মীর যেমন প্রয়োজন, পাশাপাশি ভাল মানুষ নির্বাচন করাটাও গুরুত্বপূর্ণ। ইডিইউতে নিয়োগের ক্ষেত্রে আমরা দক্ষতার চেয়েও মূল্যবোধসম্পন্ন ভাল মানুষ নির্বাচনকেই আমরা প্রাধান্য দিয়ে থাকি। কেননা, দক্ষতা উন্নত করা যায়, কিন্তু ভাল মানুষ গড়ে তোলা এর চেয়েও কঠিন।’

এ সময় তিনি ইডিইউর এডমিন ও ফ্যাকাল্টি মেম্বারদের জন্য গ্র্যাচুইটি সুবিধা চালু ও ইংরেজি নববর্ষ উপলক্ষে বিশেষ ইনসেনটিভের ঘোষণা দিলে ব্যাপক করতালির রোল ওঠে।

সভাপতির বক্তব্যে ইডিইউর উপাচার্য প্রফেসর মুহাম্মদ সিকান্দার খান বলেন, ‘চট্টগ্রামের শিক্ষার্থীদের দক্ষ মানবসম্পদে রূপান্তরে কাজ করছি আমরা। আজ বাংলাদেশের ইন্ডাস্ট্রির বড় বড় কর্তারা এখানে এসেছেন। আপনারা আমাদের জানাবেন, শিক্ষার্থীদের কিভাবে গড়ে তুললে বাংলাদেশের ইন্ডাস্ট্রিতে কর্মরত প্রতিষ্ঠানগুলো উপকৃত হবে। আমরা সেভাবেই গড়ে তুলব। ইন্ডাস্ট্রি ও উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মাঝে পারস্পরিক সহযোগিতা ও বোঝাপড়া না থাকলে মানবসম্পদ দক্ষ হবে না, বাংলাদেশও প্রকৃতঅর্থে স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়ে উঠতে পারবে না।’

এ আয়োজনের সহযোগী প্রতিষ্ঠান হিসেবে আছে প্রথম আলো। এ ছাড়া, ডায়মন্ড পার্টনার হিসেবে আছে বিএসআরএম, এলিট পেইন্ট, গ্রুপ নটিকা, টিসিএল গ্লোবাল; ট্রান্সপোর্টেশন পার্টনার হিসেবে যাত্রী; জেনারেল পার্টনার ইউনিভার্সিটি অব পোর্টসমাউথ; ব্রোঞ্জ পার্টনার ট্যালেন্ট ম্যানেজমেন্ট; মিডিয়া পার্টনার দ্য বিজনেস স্টান্ডার্ড, বাংলানিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম, চ্যানেল ২৪ ও সময়টিভি; ফুড পার্টনার হিসেবে আছে ক্যাফে মিলানো ও লে বেকহাউজ।

এতে যোগদানকারী অন্যান্য প্রতিষ্ঠানগুলো হল দারাজ, পিটুপি, সফট টেক ইনোভেশন, সবুজ গ্লোবাল এডুকেশন, ইউনিভার্সিটি অব দ্য ওয়েস্ট অব ইংল্যান্ড, কেনপার্ক এন্ড রিজেন্সি, সিপিডিএল, লিড বাংলাদেশ, ক্রিয়েটিভ আইটি, এভারকেয়ার হসপিটাল, কেএসআরএম, এমজিএইচ, টিচ ফর বাংলাদেশ, হাইডেলবার্গ সিমেন্ট, কনফিডেন্স সিমেন্ট, জিপিএইচ ইস্পাত, আইডিপি এডুকেশন, মমতা, গ্রামীণফোন, প্যাসিফিক জিন্স, রবি, র‌্যাংকস এফসি প্রপার্টিজ, এপিক হেলথকেয়ার, জাগো ফাউন্ডেশন, ম্যারিকো, ওয়ালটন ও গ্লোবাল হাইটস এন্ড মেলবোর্ন মেট্রোপলিটন কলেজ।

‘প্লেসমেন্ট ডে’তে প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের বিভিন্ন পদে নিয়োগ দিতে সিভি গ্রহণ এবং সরাসরি সাক্ষাৎকার ও লিখিত পরীক্ষা নিচ্ছে। এ ছাড়া, দর্শনার্থীরা প্রতিষ্ঠানগুলোতে চাকরির ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় তথ্য, সুযোগ-সুবিধাগুলো এবং ইন্টার্নশিপের বিষয়েও জানতে পারছে।

প্রথম দিনের আলোচকদের মধ্যে ছিলেন জিপিএইচ ইস্পাতের চিফ পিউপল অফিসার শারমিন সুলতানা, দ্য ডেইলি স্টারের চিফ বিজনেস অফিসার তাজদিন হাসান, ওয়ালটনের চিফ বিজনেস অফিসার তাওহিদুর রহমান রাদ, ইডিইউর অ্যাসোসিয়েট ডিন প্রফেসর নাজিম উদ্দিন, হাইডেলবার্গ সিমেন্টের হেড অব এইচআর মো. আলমগীর, রবি আজিয়াটার চিফ হিউম্যান রিসোর্স অফিসার ফয়সাল ইমতিয়াজ খান, ওয়ার্ক স্মার্ট কনসালটিংয়ের লিড কনসালটেন্ট ইসতিয়াক আহমেদ তাহের, এভারকেয়ার হসপিটালের সিনিয়র এইচআর ডিরেক্টর কায়সার চৌধুরী, গ্রামীণফোনের চিফ বিজনেস অফিসার আসিফ নাইমুর রশিদ, ইডিইউর কনফিডেন্স গ্রুপের ডিরেক্টর এইচআর তরিকুল ইসলাম ও গ্রুপ নটিকার ম্যানেজিং ডিরেক্টর তাওফিক ওমর হাসান।