মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪

শিরোনাম

ছাত্রদলের দুর্বার আন্দোলনের মাধ্যমে ভোটাধিকার পুনরুদ্ধার হবে

মঙ্গলবার, জানুয়ারী ২, ২০২৪

প্রিন্ট করুন

চট্টগ্রাম: বর্তমান অবৈধ সরকার বাংলাদেশের সব সেক্টরকে ধ্বংস করে দিয়েছে উল্লেখ করে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আহবায়ক শাহাদাত হোসেন বলেছেন, ‘বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান ছাত্রদল প্রতিষ্ঠা করেছিলেন যে কোন পরিস্থিতিতে দেশের মানুষের পাশে থাকার জন্য। গণতন্ত্র ও ভোটের অধিকার নিশ্চিত করে প্রতিটি ক্যাম্পাসে ছাত্রদের অধিকার নিয়ে কাজ করার জন্য। ‍কিন্তু বর্তমান সরকার মানুষের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়েছে। আগামী ৭ জানুয়ারীর আসন ভাগাভাগির যে নির্বাচন, সেটা নির্বাচনের সংজ্ঞার মধ্যেই পড়ে না। এ নির্বাচন জনগণের সাথে তামাশা ছাড়া আর কিছুই নয়। দলীয় সরকারের অধীনে কোন সুষ্ঠু নির্বাচন হতে পারে না। ছাত্রদল দীর্ঘ দিন ধরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ, নিয়মিত ছাত্র সংসদ নির্বাচন ও দেশে অবরুদ্ধ গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের জন্য সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছে। আগামী দিনে ছাত্রদলের দুর্বার আন্দোলনের মাধ্যমে দেশে গণতন্ত্র ও ভোটাধিকার পুনরুদ্ধার হবে।’

সোমবার (১ জানুয়ারি) বিকালে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের ৪৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে সিটির কাজীর দেউড়ির বিএনপির দলীয় কার্যালয়ে নাসিমন ভবনে চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদলের র‍্যালীপূর্বক সমাবেশে এসব কথা বলেন।

এতে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় শাহাদাত হোসেন আরো বলেন, ‘এই স্বৈরাচার সরকার ক্ষমতায় আর বেশি দিন টিকে থাকতে পারবে না। তাদের সময়ে ফুরিয়ে এসেছে। গেল ১৫ বছর ধরে জনগণের সম্পদ লুটেপুটে খেয়েছে। মেগা প্রকল্পের নামে মেঘা দুর্নীতির করে নিজেদের ভাগ্য উন্নয়ন করেছে। বাংলাদেশকে বিশ্ব দরবারে দুর্নীতিগ্রস্ত রাষ্ট্র হিসেবে পরিচিত করেছে। তাদের এক এক নেতা আঙ্গুল ফুলের কলাগাছ হয়েছে। সম্পদের পাহাড় গড়েছে। তারা ফের ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য আগামী ৭ জানুয়ারি একদলীয় নির্বাচনের পায়তারা করছে। কিন্তু, জনগণ তাদের সাথে নেই। জনগণ এই নির্বাচনে ভোটে অংশ নেবে না।’

এই সরকার একটি মামলা বাজ সরকার উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা সাজানো মামলা দিয়ে সারা দেশের হাজার হাজার নেতাকর্মীদের জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে এবং লাখ লাখ নেতা-কর্মী বাড়ি ঘর ছাড়া হয়েছে। মিথ্যা সাজানো বানোয়াট মামলায় নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করায় নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং দ্রুত সব রাজবন্দীর মুক্তি দাবি করছি।’

চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক সালাউদ্দিন সাহেদের সভাপতিত্বে ও ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক সামিয়াত আমিন জিসান ও আরিফুর রহমান মিঠুর যৌথ সঞ্চালনায় সমাবেশে বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির যুগ্ন আহবায়ক সাবেক ছাত্রনেতা ইয়াসিন চৌধুরীর লিটন, আব্দুল মান্নান, নগর বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য গাজী মোহাম্মদ সিরাজুল্লাহ, সাবেক ছাত্রনেতা কামরুল ইসলাম, ছাত্রদলের নেতা আব্দুল্লাহ আল নোমান।

সমাবেশে স্বাগত বক্তৃতা করেন চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক জিএম সালাউদ্দিন কাদের আসাদ, জাহেদ হোসেন খান জসি, সদস্য কামরুল হাসান আকাশ, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক আমজাদ হোসেন শাকিল, কোতোয়ালি থানা ছাত্রদলের আহবায়ক ইয়াকুব আলী জুয়েল, চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রদলের আহবায়ক সাফরাজ নুরী সিজ্জি, পাঁচলাইশ থানা ছাত্রদলের সদস্য সচিব আকিব হাসান চৌধুরী, চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রদলের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক বোরহানুল হক, বাকলিয়া থানা ছাত্রদলের নেতা মিহির।