মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪

শিরোনাম

জাপানে কয়েক ঘণ্টায় ১৫৫ ভূমিকম্প, মৃত ১৩

মঙ্গলবার, জানুয়ারী ২, ২০২৪

প্রিন্ট করুন

শিকাওয়া প্রিফেকচার, জাপান: পূর্ব এশিয়ার দ্বীপদেশ জাপানে মাত্র কয়েক ঘণ্টার মধ্যে অন্তত ১৫৫ বার ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। জাপানের মিটিওরোলিজক্যাল এজেন্সি (জেএমএ) জানিয়েছে, এর মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ ভূমিকম্পটির মাত্রা ছিল রিখটার স্কেলে সাত দশমিক ছয়, অপর একটি ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল ছয়। এ দিকে, এই ভূমিকম্পে অন্তত ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। খবর জাপান টাইমস, এনএইচকের।

১৫৫টি ভূমিকম্পের প্রায় সবগুলোই রিখটার স্কেলে তিন মাত্রার ওপরে। সময় যাওয়ার সাথে সাথে তীব্রতাও কমে এসেছে। তবে মঙ্গলবার (২ জানুয়ারি) সকালের দিকেও বেশ কয়েক বার ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে বলে জানিয়েছে জেএমএ।

মূলত তীব্র ভূমিকম্পের কারণে বেশ কয়েকটি ভবন ধসে পড়ার কারণে প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে। সব মিলিয়ে ভূমিকম্প উপদ্রুত ইশিকাওয়া প্রিফেকচারে প্রায় ৩৩ হাজার বাড়ি বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়ে। এ ছাড়া, ভূমিকম্পের সময় বিদ্যুৎ স্ফুলিঙ্গ থেকে সৃষ্ট আগুনেও বেশ কয়েকজনের মৃত্যু হয়েছে। তবে, কোন এলাকায় কত জন মারা গেছে, সে বিষয়ে কোন তথ্য জান যায়নি।

এর আগে সোমবার (১ জানুয়ারি) বিকাল চারটা দশ মিনিটের দিকে জাপানের নতো অঞ্চলে সাত দশমিক ছয় মাত্রার এই ভয়াবহ ভূমিকম্প আঘাত হানে। ভূমিকম্পের পরপরই সুনামির আশঙ্কায় সতর্কতা জারি করেছেন স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তারা। প্রাথমিকভাবে অবশ্য ভূমিকম্পের মাত্রা বলা হয়েছে সাত দশমিক চার।

ভূমিকম্পের পরপরই স্থানীয় ইশিকাওয়া, নিগাতা, তোয়োমা এবং ইয়ামাগাতা প্রিফেকচারের উপকূলীয় এলাকার বাসিন্দাদের জন্য সুনামি সতর্কতা জারি করা হয়। তাদের দ্রুত উপকূল ছেড়ে উঁচু এলাকায় সরে যাওয়ার জন্য অনুরোধ জানানো হয়।

ভূমিকম্পের তীব্রতা এতটাই বেশি ছিল যে, রাজধানী টোকিও থেকেও এর কম্পন অনুভূত হয়েছে। ভূমিকম্পের দশ মিনিটের মধ্যেই ১২ ফুট উচ্চতার একটি ঢেউ এসে আছড়ে পড়ে দেশটির ইশিকাওয়া প্রিফেকচারের ওয়াজিমা বন্দরে।

এর পূর্বে, ২০২২ এর অক্টোবরেও জাপানে আঘাত হানে ছয় দশমিক ছয় মাত্রার ভূমিকম্প। সে সময়ও দেশটির কর্তৃপক্ষ সুনামি সতর্কতা জারি করেছে। জাপানের পশ্চিম প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের দ্বীপ ইজুতে এই সতর্কতা জারি করা হয়েছিল।