মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪

শিরোনাম

নিউইয়র্কের বিতর্কিত স্টেডিয়ামে শীর্ষ স্থান দখলের লড়াইয়ে নামছে দক্ষিণ আফ্রিকা-নেদারল্যান্ডস

শুক্রবার, জুন ৭, ২০২৪

প্রিন্ট করুন

নিউইয়র্ক সিটি, যুক্তরাষ্ট্র: যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের নাসাউ কাউন্টি স্টেডিয়ামের উইকেট ব্যাটারদের জন্য মৃত্যুকূপে পরিণত হয়েছে। সেই ভেন্যুতেই শনিবার (৮ জুন) ‘ডি’ গ্রুপের ম্যাচে মুখোমুখি হচ্ছে দক্ষিণ আফ্রিকা ও নেদারল্যান্ডস। এ গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে জয় পেয়েছে এ দুুই দল। গ্রুপে সর্বোচ্চ দুই করে পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে তারা। এবার এককভাবে গ্রুপের শীর্ষে উঠার লক্ষ্য শনিবার (৮ জুন) বির্তকিত নাসাউ কাউন্টি স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় রাত আটটা ৩০ মিনিটে মাঠে নামবে দক্ষিণ আফ্রিকা ও নেদারল্যান্ডস।

এ ভেন্যুতে বিশ্বকাপের দুইটি ম্যাচ হওয়ার পর উইকেট নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছে ক্রিকেট বিশ্বে। তাতে সায় দিয়েছে ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলও (আইসিসি)। ঐ ভেন্যুর উইকেটকে ‘অপ্রত্যাশিত’ বলেছে আইসিসি। উইকেটকে আরো ভাল করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে বিবৃতিতে আইসিসি জানায়, আইসিসি এটা মেনে নিচ্ছে যে, নাসাউ কাউন্টি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে এখন পর্যন্ত যে পিচ ব্যবহার করা হয়েছে, সেটা আমাদের চাওয়া অনুযায়ী হয়নি। ভারত-আয়ারল্যান্ড ম্যাচের পর থেকেই এ ভেন্যু নিয়ে বিশ্ব মানের গ্রাউন্ডসের টিমম্যানরা কঠোর পরিশ্রম করছে। অবশিষ্ট ম্যাচগুলোর জন্য ভাল উইকেট বানাতে মাঠে নেমেছে তারা।

সোমবার (৩ জুন) শ্রীলংকা-দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচ দিয়েই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় নিউইয়র্কের নাসাউ কাউন্টি স্টেডিয়ামের। আর ঐ ম্যাচে দুই দল মিলে করেছে ১৫৭ রান। এরপরই ঐ ভেন্যুর উইকেট নিয়ে সমালোচনার ঝড় ওঠে।

নিউইয়র্কে অনুষ্ঠিত ঐ ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে ১৯ দশমিক এক ওভারে মাত্র ৭৭ রানে অলআউট হয় শ্রীলংকা। টি-২০ ক্রিকেটে এটিই সর্বনিম্ন রান লংকানদের। ৭৮ রানের লক্ষ্যে স্পর্শ করতে বেগ পেতে হয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকাকেও। তারপরও ২২ বল বাকী রেখে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে প্রোটিয়ারা।

শ্রীলংকা-দক্ষিণ আফ্রিকার পর বুধবার (৫ জুন) একই ভেন্যুতে মুখোমুখি হয় ভারত ও আয়ারল্যান্ড। প্রথমে ব্যাট করে ৯৬ রানে গুটিয়ে যায় আইরিশরা। ১৩তম ওভারে লক্ষ্য স্পর্শ করে আট উইকেটে জয় পায় ভারত।

ভেন্যুর উইকেট নিয়ে বিতর্কের মাঝে বিশ্বকাপে টানা দ্বিতীয় জয়ে চোখ দক্ষিণ আফ্রিকা-নেদারল্যান্ডসের। দুই দলই চাইছে জয়ের স্বাদ নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠতে।

দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক আইডেন মার্করাম বলেন, ‘নিউইয়র্কের উইকেটের ওমন উইকেটে শ্রীলংকার বিপক্ষে খেলাটা কঠিনই ছিল। তারপরও সাফল্যের সঙ্গে ম্যাচটি শেষ করতে পেরেছিলাম আমরা। আমাদের এখন মূল ফোকাস নেদারল্যান্ডস ম্যাচের দিকে। জয়ের ধারা অব্যাহত রেখে এককভাবে শীর্ষে উঠতে চাই আমরা।’

নেদারল্যান্ডসের অধিনায়ক স্কট এডওয়ার্ডস বলেন, ‘নিউইয়র্কের উইকেট নিয়ে ধারণা নেই আমাদের। যা শুনেছি বা দেখেছি, তাতে ভয়ংকরই লাগছে। তবে আশা করছি, কালকের ম্যাচে উইকেট ভাল আচরণ করবে। যেহেতু আইসিসি এখন নজরদারি করছে। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে জয়ের লক্ষ্য নিয়ে আমরা মাঠে নামব।’

টি-টোয়েন্টিতে মাত্র দুই বার দেখা হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা-নেদারল্যান্ডসের। দুই বারই বিশ্বকাপ মঞ্চে। এক বার করে জয় পেয়েছে দুই দল। ২০১৪ সালের বিশ্বকাপে ছয় রানে দক্ষিণ আফ্রিকা ও ২০২২ সালের আসরে ১৩ রানে জিতেছিল নেদারল্যান্ডস।

দক্ষিণ আফ্রিকা দল: আইডেন মার্করাম (অধিনায়ক), অটনিল বার্টম্যান, জেরাল্ড কোয়েৎজি, কুইন্টন ডি কক, বিজর্ন ফরচুইন, রেজা হেনড্রিক্স, মার্কো জানসেন, হেনরিচ ক্লাসেন, কেশব মহারাজ, ডেভিড মিলার, এনরিচ নর্টি, কাগিসো রাবাদা, রায়ান রিকেলটন, তাবরাইজ শামসি, ট্রিস্টান স্টাবস।

নেদারল্যান্ডস দল: স্কট এডওয়ার্ডস (অধিনায়ক), আরিয়ান দত্ত, বাস ডি লিড, ড্যানিয়েল ডোরাম, ফ্রেড ক্লাসেন, লোগান ভ্যান বিক, ম্যাক্স ও’ডাউড, মাইকেল লেভিট, পল ভ্যান মিকেরিন, সাইব্রান্ড এঙ্গেলব্রেচ, তেজা নিদামানুরু, টিম প্রিঙ্গেল, বিক্রম সিং, ভিভ কিংমা এবং ওয়েসলি বারেসি।