সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪

শিরোনাম

নিউইয়র্কে নিজ এলাকার প্রবাসীদের সাথে নাসিকের মেয়র আইভীর আড্ডা

বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ৫, ২০২৩

প্রিন্ট করুন

নিউইয়র্ক, যুক্তরাষ্ট্র: নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের (নাসিক) মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী স্টেট ডিপার্টম্যান্টের আমন্ত্রণে যুক্তরাষ্ট্র সফরে এসে বৃহস্পতিবার (২৮ সেপ্টেম্বর) রাতে প্রবাসী নারায়ণগঞ্জবাসীদের সাথে আড্ডা দিয়েছেন। নিউইয়র্ক সিটির ফ্রেশমেডো এলাকার একটি রেষ্টুরেন্টে নারায়ণগঞ্জবাসীদের সাথে মিলিত হয়ে খোশ-গল্পে মেতে উঠেন আইভী। নিজ শহর বিষয়ক আড্ডায় নানা প্রশ্নের জবাবও দেন তিনি।

আইভী প্রথম বারের মত নিউইয়র্ক এসেছেন বলে প্রবাসী নারায়ণগঞ্জবাসী তাকে সংবর্ধনা দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু, তিনি রাজী হননি। কেন সংবর্ধনা নেবেন না- এই প্রশ্নের জবাবে মেয়র আইভী বলেছেন, ‘নারায়ণগঞ্জ শহর ও জেলার বিভিন্ন স্থানে দাতব্য প্রতিষ্ঠান রয়েছে। আপনারা যে অর্থ খরচ করে আমাকে সংবর্ধনা দেবেন, ঐ অর্থ দাতব্য প্রতিষ্ঠানে দিয়ে দিন। এতে দুঃস্থ ও গরীব মানুষ উপকৃত হবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘সানফ্রান্সিসকো শহরে বসবাসকারী নারায়ণগঞ্জবাসীদের আর্থিক সহযোগিতায় শহরের একটি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রোগীরা অপেক্ষাকৃত কম দামে কিডনী ডায়ালিসিস করাতে পারছেন। নিউইয়র্ক প্রবাসীরাও এমন উদ্যোগ নিতে পারেন। জনকল্যাণমূলক যে কোন কাজে আপনারা আর্থিক সহযোগিতা করলে আমি মেয়র হিসাবে পাশে থাকব। আমাদের সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় অসহায়, নিপীড়িত, দরিদ্র মানুষ এতে সেবা পাবে। তাদের কষ্ট কিছুটা হলেও লাঘব হবে।’

সেলিনা হায়াৎ আইভী সব প্রবাসীর প্রতি আহবান জানিয়ে বলেন, ‘আপনারা নিজ নিজ এলাকায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করুন।’

নারায়ণেগঞ্জ শহরের ফুটপাত দখলমুক্ত প্রসঙ্গে তার দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি বলেন, ‘প্রশাসনের কঠোর ভূমিকা ও রাজনীতিবিদদের সদিচ্ছা থাকলে ফুটপাত দখল মুক্ত করা সম্ভব। কিন্তু, আমি অতীতে এ কাজ করতে গিয়ে মৃত্যুর ঝুঁকিও নিয়েছি। আমি ফুটপাত দখল মুক্ত করতে চার শত হকারকে পুর্নাবাসন করেছিলাম। ফুটপাত ফের দখল হয়ে যায়। এভাবে এ সমস্যার সমাধান করা সম্ভব নয়।’

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘চাঁদাবাজী হচ্ছে ফুটপাত দখল করে রাখার মূল উদ্দেশ্য। শহরের বিভিন্ন ফুটপাত থেকে কে বা কারা চাঁদা তুলছে, তা নগরবাসী জানে।’

আইভী বন্দর এলাকায় অচিরে পানি সরবরাহ ব্যবস্থার পরিসর বড় ও সেবা বাড়ানো হবে বলে এক প্রশ্নের জবাবে জানান।

তিনি আরো বলেন, ‘আমি ২০০৩ সালে যখন পৌরসভার চেয়ারম্যান হিসাবে নির্বাচিত হই, তখন এই পৌরসভার অর্থভান্ডার ছিল শূন্য। এ অবস্থা থেকে আমি দিনের পর দিন উত্তরণ ঘটিয়েছি। পৌর চেয়ারম্যান থেকে মেয়র হয়েছি, অনেক নগরবাসীকে আয়কর দিতে বাধ্য করেছি। পৌরসভার জমি বা রাস্তাঘাট দখলমুক্ত করেছি। পরিত্যাক্ত জিমখানা খাল এখন নয়নাভিরাম লেকে পরিণত হয়েছে। সরকারের সহযোগিতার পাশাপাশি ও বিদেশী দাতা সংস্থার সহযোগিতা পেয়ে আমি নাসিকের উন্নয়ন কাজ করতে পেরেছি এবং এই কাজ ধারাবাহিকভাবে চলছে।’

অপর এক প্রশ্নের জবাবে আইভী বলেন, ‘মামলার লাল ফিতায় বন্দি হয়ে আছে ফতুল্লা থানাধীন কাশীপুর ও এনায়েত নগর ইউনিয়নের কিছু এলাকা সিটি কর্পোরেশনের আওতায় আনার বিষয়টি। এর পেছনে রাজনীতির কুটিল চাল রয়েছে। তবে, আমার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।’

বলে রাখা ভাল, নিউইয়র্কে আইভীর সাতে প্রবাসী নারায়ণগঞ্জবাসীর আড্ডার আয়োজন করেছিলেন তার ক্লাসমেট গ্রুপ ‘হাউকাউ’ এর সদস্যরা। তারা হলেন মাহফুজা মিতা, মোহাম্মদ পারভেজ, আছির আহমেদ মানিক, রওনক জাহান দিবা, ফারহানা চৌধুরী, সেলিনা পারভীন, ক্রিস্টোফার গোমেজ, আলী আকবর বাবু ও মোস্তফা জামাল টিটু।

আইভীর সাথে আড্ডায় অংশ নেন বীর মুক্তিযোদ্ধা আজিজুল ইসলাম আজিম ও মো. মতিউর রহমান, নির্মল পাল, কামরুল হাসান বাদল, চঞ্চল আহমেদ, মনিরুজ্জামান সেলিম, নূর হোসেন বাবুল, আসাদৌল্লা চৌধুরী বাদল, সাদেকুর রহমান লিখন, মনজুরুল করিম, জাতীয় দলের সাবেক ফুটবলার সম্রাট হোসেন এমিলি ও জানে আলম বাবু শফিউদ্দিন প্রধান শফি, আব্দুল আউয়াল, মশিউর রহমান তুহিন, কামাল হোসেন টিটো, সুহিন আলী, নিতাই দাস, অনিতা মোদক, সাংবাদিক দর্পণ কবীর, আয়েশা আক্তার লিলি, মহসিনা খান শিল্পী, সেলিম আহমেদ।