মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪

শিরোনাম

নিউইয়র্ক সিটির উন্নয়নে বাংলাদেশিদের অবদান অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ

শনিবার, মার্চ ২৫, ২০২৩

প্রিন্ট করুন

নিউইয়র্ক, যুক্তরাষ্ট্র: যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক সিটির মেয়র এরিক এডামস বলেছেন, ‘নিউইয়র্ক সিটির উন্নয়নে বাংলাদেশিদের অবদান অত্যন্ত গুরত্বপূণ। কমিউনিটির সেবায় আরো বেশী করে আত্মনিয়োগ করুন।’

মঙ্গলবার (২১ মার্চ) মেয়রের বাস ভবন ‘গ্রেসি ম্যানশনে’ অনুষ্ঠিত বাংলাদেশি হেরিটেজ ও স্বাধীনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। বাংলাদেশিদের জন্য এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে এরিক এডামস নানা ধর্ম, বর্ণ ও ভাষাভাষি মানুষের সমন্বয়ে গড়ে ওঠা নিউইয়র্ক সিটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

মেয়র বলেন, ‘আজকে এ দিনটিতে আপনাদের আমন্ত্রণ জানাতে পেরে আমি আনন্দিত।’

এ অনুষ্ঠানের উদ্যোগ নেয়ার জন্য মেয়র তার এশিয়া বিষয়ক উপদেষ্টা ফাহাদ সোলায়মানকে অভিনন্দন জানান।

নিউইয়র্কে বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল মনিরুল ইসলাম, নিউয়র্কের অ্যাসেম্বেলিওমেন জেনিফার রাজকুমার, ফাহাদ সোলায়মান অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন।

অনুষ্ঠানে মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘আজকে সব বাংলাদেশির জন্য একটি গর্বের দিন। মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে আমরা যে স্বাধীনতা অর্জন করেছি, আজ সেটি আরো বেশী মহিমান্বিত হল। এমন একটি অনুষ্ঠান নিউইয়র্কের বাঙালি কমিউনিটির জন্য ইতিহাস হয়ে রইল।’

ফাহাদ সোলায়মান বলেন, ‘আজকের দিনটি একটি বিশেষ দিন। এরিক এাডামস বাংলাদেশিদের আমন্ত্রণ জানিয়ে বাংলাদেশিদের উচ্চতায় নিয়ে গেলেন। বাংলাদেশীবান্ধব মেয়র আমাদের নিউইয়র্ক সিটিকে নতুন করে সাজাতে অত্যন্ত আন্তরিক।’

জেনিফার রাজকুমার বাংলাদেশিদের আনন্দঘন এ দিনে থাকতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করে বলেন, `একমাত্র বাঙালিরাই রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মধ্য দিয়ে তাদের দেশ স্বাধীন করেছে।’

মেয়র অফিসের সহকারী পরিচালক উমিয়া হাসান বঙ্গবন্ধুকে স্মরণ করে বলেন, `এবারই প্রথম গ্রেসি ম্যানশনে মেয়র বাংলাদেশিদের জন্য বিশেষ এ আয়োজন করলেন।’

অনুষ্ঠানে কমিউনিটিতে বিশেষ অবদান রাখার জন্য পাঁচজন বাংলাদেশীকে সাইটেশন দিয়ে সম্মানিত করেন মেয়র। তারা হলেন- ফখরুল ইসলাম দেলোয়ার, রুতবা তাবাসুম, রিমা বেগম, শাহ্ জে চৌধুরী ও বাবু খান।