মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪

শিরোনাম

নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্গন/আত্মসমর্পণে জামিন সাংসদ মোস্তাফিজের

বুধবার, জানুয়ারী ৩, ২০২৪

প্রিন্ট করুন

চট্টগ্রাম: মনোনয়ন পত্র দাখিলের সময় চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন ও সাংবাদিককে মারধর-নাজেহালের অপরাধে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) করা মামলায় আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন পেয়েছেন বাঁশখালীর সরকার দলীয় সাংসদ ও আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী। বুধবার (৩ জানুয়ারি) দুপুরে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট প্রথম আদালতে বিচারক জুয়েল দেবের আদালতে তিনি হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করলে জা‌মিন মঞ্জুর করেন বিচারক।

ব্যাপারটি নিশ্চিত করে মামলার বাদী বাঁশখালী উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা হারুন মোল্লা বলেন, ‘নির্বাচনী আচরণবি‌ধি লঙ্ঘনের বিষয়ে আমি মামলা করেছি। তি‌নি আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করায় আদালত তাকে জামিন দিয়েছেন।’

ইসির আইন শাখার উপসচিব মো. আব্দুছ ছালামের সই করা চিঠিতে বলা হয়, ‘মোস্তাফিজুর রহমান ৩০ নভেম্বর ব্যাপক শোডাউন করে মনোনয়ন পত্র জমার সময় তার সাথীদের নিয়ে রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে ঢুকেন। এই প্রার্থীকে আচরণবিধি লঙ্ঘনের ব্যাপারে প্রশ্ন করলে সাংবাদিককে গালিগালাজ ও মারধর করে মাটিতে ফেলে দেন ও প্রাণনাশের হুমকি দেন।’

পরে, নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটি মোস্তাফিজুর রহমানের আচরণবিধি লঙ্ঘনের ব্যাপারে নির্বাচন কমিশনে প্রতিবেদন দেয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘মোস্তাফিজুর রহমান বেশি লোকজন নিয়ে এসে আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন বলে প্রতীয়মান হয়েছে।’

তবে সাংবাদিককে ‘মারধর ও হুমকির’ ব্যাপারটি অনুসন্ধানে প্রমাণিত হয়নি। সে কারণে মামলায় সাংবাদিকদের মারধরের অভিযোগ অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি জানিয়ে বাদী হারুন মোল্লা জানান, নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটির প্রতিবেদনের ভিত্তিতেই মামলা করেন তিনি।