সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪

শিরোনাম

প্রদর্শনীতে উইল স্মিথের থ্রিলারধর্মী চলচ্চিত্র ‘ইম্যানসিপেশন’

রবিবার, অক্টোবর ২, ২০২২

প্রিন্ট করুন

ওয়াশিংটন ডিসি, যুক্তরাষ্ট্র: অস্কারের মঞ্চে ‘থাপ্পড়-কাণ্ডে’র পর এ প্রথম পর্দায় আসছেন হলিউড অভিনেতা উইল স্মিথ। সম্প্রতি ওয়াশিংটন ডিসিতে উইল স্মিথ ও অ্যান্টোইনে ফুকার আসন্ন চলচ্চিত্র ‘ইম্যানসিপেশন’ এর প্রথম প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে অ্যাপল। খবর দ্য হলিউড রিপোর্টারের।

এ দিকে, ২০২২ এর অস্কারে স্মিথ অনুষ্ঠান চলাকালীন মঞ্চে উঠে উপস্থাপক ক্রিস রককে চড় মারা কাণ্ডে পুরো বিশ্ব রীতিমত অবাক হয়েছে। মূলত ক্রিস রক কৌতুকের ছলে স্মিথের স্ত্রী জাদা পিঙ্কেটকে নিয়ে রসিকতা করেছিলেন, যার দরুন এমন কাণ্ড ঘটিয়েছেন এ অভিনেতা। আর সেই ঘটনার পর স্মিথ একাডেমি থেকে পদত্যাগ করেন। তার বেশ কিছু সিনেমার কাজও আটকে রাখা হয়েছে । এ ছাড়া এ ঘটনার পর তিনি ক্ষমাও চেয়েছেন রক, রকের পরিবার, তার অস্কার বিজয়ী সহকর্মীসহ অনেকের কাছে।

এরই মধ্যে স্মিথ তার ‘ইম্যানসিপেশন’ সিনেমাটির প্রদর্শনী সম্পর্কে জানান, নিজের ক্যারিয়ারজুড়ে দাসত্বের গল্পে নির্মাণ করতে যাওয়া অনেক চলচ্চিত্রই তিনি প্রত্যাখ্যান করেছেন। এ ছাড়া তিনি কখনোই এমনটা দেখাতে চান নি। যখন এ সিনেমাটি তার কাছে আসে, তিনি তা নেন। কেননা, এটি দাসত্বের চলচ্চিত্র নয়। এটি স্বাধীনতা নিয়ে একটি চলচ্চিত্র। এটি স্থিতিস্থাপকতা সম্পর্কে একটি চলচ্চিত্র। এটি বিশ্বাস নিয়ে একটি চলচ্চিত্র।

তিনি আরো জানান, সিনেমাটি একজন মানুষের হৃদয় নিয়ে চলচ্চিত্র, যাকে প্রথম ভাইরাল চিত্র বলা যেতে পারে। দাসত্বের বিরুদ্ধে এক শোভাযাত্রার আর্তনাদ এবং এটি এমন একটি গল্প, যা অভিনেতার হৃদয়কে বিস্ফোরিত করেছিল।’

স্মিথ বলেন, ‘আমি আপনাদের সামনে সিনেমাটি এমনভাবে উপস্থাপন করতে চেয়েছিলাম, যেন আপনারা এর গভীরতা উপলব্ধি করতে পারেন। আর এ কাজটি শুধু অ্যান্টোইনে ফুকাই করতে পারে।’

মূলত ক্রীতদাস পিটারের (স্মিথ) সত্য ঘটনা অবলম্বনে সিনেমাটি নির্মিত, যে তার পরিবারের সন্ধানে পালিয়ে যায়। জীবনের শত প্রতিকূলতা, প্রচণ্ড ঠান্ডা ও রক্তশিকারিদের ছাড়িয়ে এগিয়ে যায় ও পথে লুইসিয়ানা জলাভূমির মৃত্যুকূপ থেকেও বেঁচে যায়। স্মিথ ও জন মোনের প্রযোজনায় ২০২৩ সালে সিনেমাটি মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে।