মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪

শিরোনাম

প্রাক্তন সেনাপ্রধান আজিজের ভাইদের পাসপোর্ট জালিয়াতির অনুসন্ধানে দুদকের পত্র

সোমবার, জুন ১০, ২০২৪

প্রিন্ট করুন

ঢাকা: প্রাক্তন সেনাপ্রধান আজিজ আহমেদের দুই ভাইয়ের পাসপোর্ট জালিয়াতির অনুসন্ধানে সংশ্লিষ্ট দফতরে পত্র দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। সোমবার (১০ জুন) দুদকের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মঈনউদ্দীন আবদুল্লাহ গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, প্রাক্তন সেনাপ্রধান আজিজ আহমেদের দুই ভাইয়ের পাসপোর্ট জালিয়াতির ব্যাপারটি তদন্ত করবে দুদক। এ জন্য সংশ্লিষ্ট দফতরে চিঠি দেয়া হয়েছে।’

এ দিকে, প্রাক্তন সেনাপ্রধান আজিজ আহমেদের দুই ভাইয়ের জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) জালিয়াতির অভিযোগে তদন্তে কমিটি গঠন করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

শুধু এনআইডি নয়, মিথ্যা তথ্য দিয়ে পাসপোর্টও তৈরি করেছেন আলোচিত দুই ভাই হারিছ আহমেদ ও তোফায়েল আহমেদ ওরফে জোসেফ। তাদের স্ত্রীরাও একই কাজ করেছেন। সেনাপ্রধান থাকার সময়ই আজিজ আহমেদের ভাইদের ভুয়া তথ্যে জাতীয় পরিচয়পত্র ও পাসপোর্ট করানোর ক্ষেত্রে তার প্রভাব খাটানোর ব্যাপারে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

সাবেক সেনাপ্রধান জেনারেল (অব.) আজিজ আহমেদের ভাই হারিছ দুইটি ও আনিস একটি খুনের মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি ছিলেন। ২০১৯ সালের ২৮ মার্চ তাদের সাজা মওকুফের প্রজ্ঞাপন জারি করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

১৯৯৬ সালে মোহাম্মদপুরের ব্যবসায়ী মোস্তাফিজুর রহমান খুনের মামলার আসামি ছিলেন জোসেফ। এ মামলায় তাকে মৃত্যুদণ্ড দেন আদালত। এ রায় বহাল রাখেন হাইকোর্ট। পরে আপিল বিভাগ সাজা কমিয়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন। ২০১৮ সালে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী তোফায়েল আহমেদ ওরফে জোসেফ রাষ্ট্রপতির ক্ষমায় মুক্তি পান।

আজিজ আহমেদ ২০১৮ সালের ২৫ জুন থেকে ২০২১ সালের ২৩ জুন পর্যন্ত সেনাপ্রধানের দায়িত্বে ছিলেন। দুর্নীতিতে সম্পৃক্ততার অভিযোগে সম্প্রতি এ তার ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।