বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪

শিরোনাম

প্রাচীন স্থাপত্যের নিদর্শন কুমিল্লার ১১ গম্বুজের নূরমানিকচর মসজিদ

শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ৯, ২০২২

প্রিন্ট করুন

কুমিল্লা (দক্ষিণ): কুমিল্লা জেলার দেবীদ্বার উপজেলার প্রাচীনতম মসজিদ নূরমানিকচর মসজিদ, যার বয়স প্রায় ৫০০ বছর। মসজিদটি ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের নূরমানিকচর বাস স্ট্র্যান্ড থেকে প্রায় আধা কিলোমিটার উত্তরে অবস্থিত।

মসজিদটি প্রাচীনতম হওয়ায় এটি দেখার জন্য বহু দূর-দূরান্ত থেকে মানুষ ভিড় জমায়। মসজিদটি এক স্থাপত্য নিদর্শন। মসজিদটির অভ্যন্তর, বহিঃপার্শ্ব, ছোট বড় ১১টি গম্বুজে রয়েছে।

জানা যায়, পঞ্চাদশ শতাব্দীর আগে মরহুম সৈয়দ নূর আহমেদ কাদেরী পীর সাহেব এ মসজিদ নির্মাণ করেন। সৈয়দ নূর আহমেদ কাদেরী পীর সাহেবের নামানুসারে ওই গ্রামের নামকরণ করা হয় নূর মানিকচর গ্রাম। মসজিদটির দৈর্ঘ্য দশ ফুট, প্রস্থ্য পাঁচ ফুট। একসাথে ২০/২৫ জন নামাজ আদায় করতে পারেন। চুন-সুরকী দিয়ে নির্মীত মসজিদটির ভেতরে অপরুপ কারুকাজ রয়েছে। মসজিদের ছাদে রয়েছে ১১টি গম্বুজ, এর মধ্যে মূল ছাদে রয়েছে সাতটি ও বাকি চারটি গম্বুজ রয়েছে মসজিদের চারকোণায়। নূরমানিকচর মসজিদটি কুমিল্লা শহর থেকে পশ্চিমে ১৮ কিলোমিটার এবং ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের নূরমানিকচর বাস স্টেশনের আধা কিলোমিটার উত্তরে অবস্থিত।

মসজিদের প্রতিষ্ঠাতা সৈয়দ নূর আহম্মেদ আল কাদেরীর বংশধর আব্দুল আলীম কাদেরী জানান, সৈয়দ নূর আহম্মেদ আল কাদেরী একজন ধর্মপ্রাণ ও দানবীর ছিলেন। তিনি মসজিদ ছাড়াও ডাকঘর, মক্তব, পাঠশালা নির্মাণ ও দিঘী খনন করে গেছেন। তিনি মনে করেন যে, মসজিদটি রক্ষা করতে হলে এখন সরকারিভাবে সংস্কার করা প্রয়োজন।