শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

শিরোনাম

ফের দক্ষিণ কোরিয়ার সাথে যৌথ মহড়ায় যুক্তরাষ্ট্র-জাপান

শনিবার, অক্টোবর ৮, ২০২২

প্রিন্ট করুন

সিউল, দক্ষিণ কোরিয়া: উত্তর কোরিয়ার সাথে চলমান উত্তেজনার মধ্যেই ফের দক্ষিণ কোরিয়ার সাথে যৌথ মহড়া শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র-জাপান। মার্কিন বিমানবাহী রণতরী ইউএসএস রোনাল্ড রিগানসহ মহড়ায় অংশ নিয়েছে অত্যাধুনিক সব যুদ্ধজাহাজ। উত্তর কোরিয়ার হুমকি মোকাবিলায় এ কর্মসূচি পরিচালিত হচ্ছে বলে জানিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া।

ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা আর পাল্টাপাল্টি সামরিক শক্তি প্রদর্শনীর জেরে কোরীয় উপদ্বীপে উত্তেজনার পারদ এখন তুঙ্গে। বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) দুই সপ্তাহের মধ্যে ষষ্ঠ বারের মত ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ করে উত্তর কোরিয়া। সেই সাথে ৩০টির বেশি অত্যাধুনিক যুদ্ধবিমান নিয়ে মহড়া চালানো হয়। এক বিবৃতিতে দক্ষিণ কোরিয়া জানায়, সম্প্রতি এটিই ছিল উত্তর কোরিয়ার সবচেয়ে বড় বিমান মহড়া।

কিম জং উনের ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণের ঠিক এক দিন পর অঞ্চলটিতে ফের যৌথ মহড়া শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র, দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপান। দুই দিন ব্যাপী এ মহড়ায় মার্কিন বিমানবাহী রণতরী ইউএসএস রোনাল্ড রিগানসহ অংশ নিয়েছে। এর সাথে থাকা স্ট্রাইক গ্রুপের বেশ কয়েকটি জাহাজ। উত্তর কোরিয়া ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়লে তা কিভাবে প্রতিহত করা হবে, সেটিকেই যাচাই করা হচ্ছে এ মহড়ার মাধ্যমে।

এক বিবৃতিতে দক্ষিণ কোরিয়া জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের সাথে প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা উন্নত করতে কাজ করে যাবে দক্ষিণ কোরিয়া। একই সাথে উত্তর কোরিয়ার যে কোন উস্কানির পাল্টা জবাব দিতে নিজেদের প্রস্তুতি যাচাইয়ের জন্যই এ মহড়া চালানো হচ্ছে।

এ দিকে, উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণের বিষয়ে জরুরি ফোনালাপ করেছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা ও দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট ইউন সুক ইওল। পরে এক বিবৃতিতে দক্ষিণ কোরিয়া জানায়, সম্প্রতি উত্তর কোরিয়ার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার বিষয়টিকে চরম উস্কানিমূলক আচরণ হিসেবে দেখছে জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়া।

একই সাথে কিম জং উনের কর্মকান্ডকে আন্তর্জাতিক শান্তির জন্য চরম হুমকি হিসেবে আখ্যা দেয়া হয়েছে। ভবিষ্যতে উত্তর কোরিয়া যেকোন উস্কানিমূলক আচরণের কঠোর জবাব দিতে সম্মত হয়েছে টোকিও-সিউল।