সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪

শিরোনাম

বয়স্ক সেবার নামে সিটির অর্থ এনে যথাযথ সেবা না দিলে ব্যবস্থা নেয়া হবে

শনিবার, মার্চ ২, ২০২৪

প্রিন্ট করুন

নিউ ইয়র্ক সিটি, যুক্তরাষ্ট্র: নিউ ইয়র্ক সিটির মেয়র এরিক অ্যাডামস বলেছেন, ‘বয়স্ক সেবার নামে সিটির অর্থ এনে যারা যথাযথ সেবা দিবে না; তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। নিউ ইয়র্কে কমিউনিটির বয়স্কদের সেবায় অনন্য অবদান রাখছে আশা হোম কেয়ার ও ডে কেয়ার। আশা করি, সেবার মানে তারা আরো এগিয়ে যাবে।’

গেল ২৩ ফেব্রুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে বাংলাদেশী মালিকানাধীন বয়স্ক সেবা প্রতিষ্ঠান আশা হোম কেয়ার ও আশা সোসাল এডাল্ট ডে কেয়ারের ষষ্ঠ বর্ষ পূর্তি অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন নিউ ইয়র্ক স্টেট অ্যাসেম্বলি ডিষ্ট্রিক্ট ৩০’র অ্যাসেম্বলি মেম্বার স্টিভেন রাগা।
কমিউনিটির বয়স্ক সেবায় অনন্য অবদানের জন্য আশা হোম কেয়ার ও আশা সোসাল এডাল্ট ডে কেয়ারকে নিউ ইয়র্ক সিটির মেয়র ও স্টেট অ্যাসেম্বলির অফিসিয়াল প্রক্লোমেশন দেয়া হয়।

আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন সিটির মেয়রের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মীর বাশার, নিউ ইয়র্ক পুলিশের ইন্সপেক্টর আদেল রানা, ক্যাপ্টেন হামিদ আরমানী, সার্জেন্ট আব্দুল লতিফ, ডিডেক্টিভ অফিসার সারোয়ার জামিল।

ষষ্ঠ বর্ষের উদ্বোধন করেন আশা হোম কেয়ার, আশা সোসাল ডে কেয়ার ও আশা চ্যারিটি ফাউন্ডেশনের প্রেসিডেন্ট আকাশ রহমান ও চেয়ারম্যান ঈশা রহমান।

অনুষ্ঠানে আকাশ রহমান বলেন, ‘নিউ ইয়র্কে হোম কেয়ার বা সোসাল ডে সেবায় আমি নিজেকে অত্যন্ত সৌভাগ্যবান মনে করি। আমি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি নিউ ইয়র্কের সব বাংলাদেশী প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সম্পাদক ও সাংবাদিক ভাই-বোনদের। আপনাদের সুপ্রচারের কারণেই অতি অল্প সময়ে আশা হোম কেয়ার দ্রুত পরিচিতি লাভ করেছে। আপনাদের সহযোগিতা ছাড়া এতটুকু আসা অসম্ভব। অসম প্রতিযোগিতায় আমরা বিশ্বাস করি না। আশা হোম কেয়ারের প্রতিযোগি শুধু আশা হোম কেয়ার। আপনারা সকলেই আশা গ্রুপের একজন অংশীদার। আপনাদের সহযোগিতা পেলে ভবিষ্যতে আরো বহু দূর এগিয়ে যাবে আশা পরিবার।’

অনুষ্ঠানের সার্বিক পরিচালনায় ছিলেন আশার ভাইস প্রেসিডেন্ট আবুল কাশেম।

আশা হোম কেয়ার ও আশা সোসাল এডাল্ট ডে কেয়ারের স্বল্প সময়ের সফলতার সংক্ষিপ্ত বিবরণী তুলে ধরেন সাংবাদিক এসএম সোলায়মান। আশা হোম কেয়ার ও ডে কেয়ারের উপর স্বল্পদৈর্ঘ্য প্রামাণ্য চিত্র প্রচার করেন সাংবাদিক সৌরভ ঈমাম। অফিসিয়াল পারমন্সের জন্য আশা হোম কেয়ার ও ডে কেয়ারের কর্মকর্তাদের সম্মাননা ক্রেস্ট দেয়া হয়। নিউ ইয়র্ক স্টেইট অ্যাসেম্বলি মেম্বার স্টিভেন রাগার সম্মাননা ক্রেষ্ট তুলে ধরেন।

আগামিতে আরো ভিন্ন রকমে সপ্তম বর্ষ আয়োজনের আশা ব্যক্ত করেন ঈশা রহমান। তিনি বলেন, ‘আশা গ্রুপের পরিকল্পনায় রয়েছে এটিভি ইউএসএ, নার্সিং হোম, নার্সিং ট্রেনিং সেন্টার, নিজস্ব ডে কেয়ার ভবন ও থেরাপী সেন্টার করার।’

শারমিন সোনিয়া ও রুহুল সরকারের সঞ্চালনায় নৃত্য ও গান করেন জেরিন মাঈশা, চন্দন চৌধুরী, নিপা জামান, ত্রিনিয়া হাসান ও কাজল।