সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪

শিরোনাম

বাইডেন প্রশাসনের কঠোরতার কারণে মানবেতর জীবন হাজারো শরণার্থীর

শুক্রবার, অক্টোবর ২১, ২০২২

প্রিন্ট করুন

ডেস্ক রিপোর্ট: কয়েক হাজার অভিবাসনপ্রত্যাশী যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের আশায় মেক্সিকো সীমান্তে জড়ো হয়েছেন। তাদের সিংহ ভাগই ভেনেজুয়েলাসহ দক্ষিণ আমেরিকার বিভিন্ন দেশের নাগরিক। খাদ্য ও বাসস্থানের অভাবে চরম মানবেতর দিন পার করছেন তারা। যে কোন মুহূর্তে উচ্ছেদ হওয়ার আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন শরণার্থীরা।

উন্নত জীবনের আশায় ঝুঁকি নিয়ে হেঁটে মেক্সিকোর যুক্তরাষ্ট্র সীমান্তে জড়ো হয়েছেন এসব অভিবাসনপ্রত্যাশী। উদ্দেশ্য যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়া। সীমান্ত এলাকায় তাঁবু টানিয়ে মাসের পর মাস অপেক্ষার প্রহর গুণছেন তারা।

বাইডেন প্রশাসনের যুক্তরাষ্ট্রের অভিবাসন নীতিতে কড়াকড়ির কারণে চরম অনিশ্চয়তার মধ্যে রয়েছেন অভিবাসনপ্রত্যাশীরা। খাবার ও বাসস্থানের অভাবে চরম মানবেতর দিন পার করছেন তারা।

অভিবাসীরা জানান, এখানে সবকিছু কর্তৃপক্ষের ইচ্ছেই হচ্ছে। তারা যা বলছে, তাদের সেটাই করতে হচ্ছে। তারা যদি বলে, এখান থেকে চলে যেতে হবে। তাহলে থাকার কোন সুযোগ নেই। এখন কর্তৃপক্ষ তাদের সরিয়ে দিচ্ছে। তারা কোনভাবেই তাদের অবস্থান করতে দেবে না। শিগগিরই যেন এ সংকটের সমাধান হয়, সেটাই তাদের চাওয়া।

এর মধ্যে নতুন করে যোগ হয়েছে উচ্ছেদ আতঙ্ক। আশ্রয় নেয়া শরণার্থীদের সরিয়ে নিতে কাজ শুরু করেছে মেক্সিকো সরকার। তাদের দাবি, নিরাপত্তার স্বার্থেই শরণার্থীদের সরিয়ে নেয়া হচ্ছে। যদিও উত্তরাঞ্চল থেকে বিতাড়িত করা হলেও ফের দক্ষিণ সীমান্তে গিয়ে জড়ো হচ্ছেন অভিভাসনপ্রত্যাশীরা।

মেক্সিকোর স্থানীয় মেয়র হামবার্তো পেরাজেলেস বলেন, ‘এখানকার পরিস্থিতি খুবই খারাপ। আমাদের কাছে যে সহযোগিতা আসছে, তার পুরোটাই তাদের দিচ্ছি। কেন্দ্রীয় সরকারের বাইরে আমাদের কিছু করার নেই। আমাদের নিজেদের থেকে কিছুই করার নেই।’

মেক্সিকো সীমান্তে আশ্রয় নেয়া অভিবাসনপ্রত্যাশীদের অধিকাংশই ভেনেজুয়েলা, গুয়াতেমালা হন্ডুরাসসহ দক্ষিণ আমেরিকার বিভিন্ন দেশের নাগরিক। প্রাকৃতিক দুর্যোগ, অর্থনৈতিক দুরবস্থাসহ বিভিন্ন কারণে দেশ ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন তারা।