শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪

শিরোনাম

ভোট গণনাযন্ত্রে ত্রুটি/অ্যারিজোনায় কারচুপির আশঙ্কা রিপাবলিকানদের

বুধবার, নভেম্বর ৯, ২০২২

প্রিন্ট করুন

মারিকোপা, অ্যারিজোনা, যুক্তরাষ্ট্র: গুরুত্বপূর্ণ মধ্যবর্তী নির্বাচন চলছে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের দুই বছরের মাথায় অনুষ্ঠিত হয় এ নির্বাচন। কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ বা প্রতিনিধি পরিষদের ৪৩৫টি আসনের প্রতিটিতে ও সিনেটের এক-তৃতীয়াংশ বা ৩৫টি আসনে ভোট হচ্ছে। এ ছাড়া ভোটাভুটি হয়েছে ৩৬টি অঙ্গরাজ্যে গভর্নর পদেও। এ নির্বাচনে ভোটগ্রহণের সময় বিপত্তি দেখা দিয়েছে অ্যারিজোনা অঙ্গরাজ্যে। অঙ্গরাজ্যটির মারিকোপা কাউন্টিতে কাজ করছিল না অনেক ইলেকট্রিক ভোট গণনাযন্ত্র। পরে অবশ্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, বেশির ভাগ যন্ত্রে সমস্যার সমাধান করা হয়েছে। খবর এএফপির।

এ দিকে, প্রতিনিধি পরিষদ ও সিনেটের কয়েকটি আসনের ফলও চলে এসেছে। আর এতে দেখা যাচ্ছে, যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদের নির্বাচনের ফলাফলে এখন পর্যন্ত এগিয়ে আছে সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের রিপাবলিকান পার্টি। আর পিছিয়ে আছে বর্তমান প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের ডেমোক্র্যাটিক পার্টি।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ৪৩৫টি আসনের মধ্যে ডেমোক্র্যাটসরা পেয়েছে ১৬৭টি আসন। আর রিপাবলিকানরা পেয়েছে ১৯০টি আসন। প্রতিনিধি পরিষদে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে হলে কমপক্ষে ২১৮টি আসনে জয় পেতে হবে।

উচ্চকক্ষ সিনেটে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে ১০০টি আসনের মধ্যে কমপক্ষে ৫০টি আসনে জয় পেতে হবে। ডেমোক্র্যাটসরা সিনেটের ৪০টি আসন ও রিপাবলিকানরা সমান ৪০টি আসন পেয়েছে

যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসের উচ্চকক্ষ সিনেটের ১০০টির মধ্যে ৩৫টি ও নিম্নকক্ষ হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসের ৪৩৫টি সাধারণ আসনের সবকটিতেই ভোট হচ্ছে এবার। সেই সাথে হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসের ‘ভোটদানের ক্ষমতাহীন’ ছয়টি আসনের মধ্যে পাঁচটি ও ৩৬টি রাজ্য ও তিনটি টেরিটরির গভর্নর নির্বাচন হবে।

মধ্যবর্তী নির্বাচনের প্রভাব মার্কিনিদের দৈনন্দিন জীবনের ওপরও নেহাতই কম নয়। বিশ্লেষকরা বলছেন, ‘কংগ্রেসের যে কোন পরিবর্তন সরাসরি মার্কিনিদের দৈনন্দিন জীবনে কীভাবে প্রভাব ফেলতে পারে, তার বড় উদাহরণ হতে পারে গর্ভপাত।

যুক্তরাষ্ট্রে মধ্যবর্তী নির্বাচন: গত জুনে যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্ট সাংবিধানিকভাবে সুরক্ষিত গর্ভপাতের অধিকার আইন বাতিল করেন। মধ্যবর্তী নির্বাচনে কংগ্রেসের নিয়ন্ত্রণ হাতে এলে এ ইস্যুতে নতুন আইনের প্রস্তাব করবে বলে জানিয়ে রেখেছে দুই দলই। যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক প্রথা অনুযায়ী, প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের দুই বছর পর অনুষ্ঠিত হয় কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভস (প্রতিনিধি পরিষদ) ও উচ্চকক্ষ সিনেটের একাংশ আসনের নির্বাচন। সেই প্রথা অনুযায়ী মঙ্গলবার (৮ নভেম্বর) প্রতিনিধি পরিষদের ৪৩৫টি আসন ও সিনেটের ৩৫টি আসনে ভোট অনুষ্ঠিত হয়েছে।