শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪

শিরোনাম

যুক্তরাষ্ট্রের কাছে নিষিদ্ধ ক্লাস্টার বোমা চেয়েছে ইউক্রেন

সোমবার, ডিসেম্বর ১২, ২০২২

প্রিন্ট করুন

ডেস্ক রিপোর্ট: রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধে ব্যবহারের জন্যে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে নিষিদ্ধ ক্লাস্টার বোমা চেয়েছে। খরব পলিটিকোর।

এ দিকে, রাশিয়ার সেনাবাহিনী সূত্রে জানা গেছে, ইউক্রেন ইতিমধ্যে এ ধরনের মারণাস্ত্র ব্যবহার করে অক্টোবরে খেরসন শহরে চার বেসামরিক নাগরিককে হত্যা করেছে।

তবে ইউক্রেনে ক্লাস্টার বোমা পাঠানোর বিষয়ে এখনই বিবেচনা করছে না বলে যুক্তরাষ্ট্র।
 
ইউক্রেন গত সেপ্টেম্বরের শেষের দিক থেকে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে মজুত করা স্নায়ুযুদ্ধের সময়ের অস্ত্রের জন্য অনুরোধ করে আসছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক মার্কিন কর্মকর্তা জানান, ইউক্রেন যে মারণাস্ত্র চেয়েছে, তার মধ্যে ক্লাস্টার বোমাও রয়েছে। 
 
তিনি জানান, এখন পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্র তাদের অনুরোধ বিবেচনা করছে না। তবে তিনি আরো বলেন,‘ এখন বিবেচনা না করলেও ভবিষ্যতেও বিবেচনা করবে না এমনটা বলা যাচ্ছে না।’ তিনি আরো জানান, এ ধরনের মারণাস্ত্রের ব্যবহারের প্রয়োজন এখনো আসে নি।
 
এ দিকে, রাশিয়ার এক সেনা কর্মকর্তা দেশটির সংবাদ মাধ্যম আরটিকে জানান, অক্টোবরের শেষের দিকে রাশিয়ার সৈন্যরা খেরসনের দিনিপ্রো নদী পার হওয়ার সময় ক্লাস্টার বোমা ব্যবহার করে একজন সাংবাদিকসহ চারজন বেসামরিক নাগরিককে হত্যা করে। 

তিনি জানান, রাশিয়া তদন্ত করে দেখেছে যুক্তরাষ্ট্রের হিমার্স ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থার মাধ্যমে ক্লাস্টার বোমা এ হামলা চালানো হয়। এ ক্লাস্টার বোমা সোভিয়েত আমলে তৈরি।
 
২০০৮ সালে কনভেনশন অন ক্লাস্টার মিউনিশন চুক্তির মাধ্যমে এ মারণাস্ত্র নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। এ সময় ক্লাস্টার বোমা নিষিদ্ধকরণ সংক্রান্ত চুক্তিতে সিই করেছিল ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ ১০৭টি দেশ। তবে এখন পর্যন্ত এ চুক্তিতে সই করে নি বেশ কিছু দেশ। তার মধ্যে অন্যতম হল যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, চীন, ইসরায়েল, ভারত, পাকিস্তান ও ব্রাজিল। মূলত বেশিরভাগ ক্লাস্টার বোমা রয়েছে এসব দেশের হাতেই।