শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪

শিরোনাম

যুক্তরাষ্ট্রের খ্রিস্টানদের গণভোট দেয়ার আহ্বান ডোনাল্ড ট্রাম্পের

রবিবার, জুন ২৩, ২০২৪

প্রিন্ট করুন

ওয়াশিংটন, যুক্তরাষ্ট্রর: যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প শনিবার (২২ জুন) ইভাঞ্জেলিক্যাল খ্রিস্টানদের প্রতি নভেম্বর মাসে তার পক্ষে গণভোট দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি নির্বাচিত হলে তাদের ধর্মীয় স্বাধীনতাকে ‘কঠোরভাবে’ সুরক্ষা করবেন বলে তার অঙ্গীকার ঘোষণা করেছেন। ইভাঞ্জেলিক্যাল খ্রিস্টান বাইবেলকে গুরুত্ব সহকারে নেয় ও যীশু খ্রীষ্টকে ত্রাণকর্তা ও প্রভু হিসাবে বিশ্বাস করে।

ট্রাম্প নিজে খুব কমই গির্জায় উপস্থিত হন, তিনি ধর্মীয় অধিকারের বিষয়ে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়েছেন। তিনি সুপ্রিম কোর্টের বিচারক নিয়োগ করে গর্ভপাতের ফেডারেল অধিকারকে উল্টে দিতে সাহায্য করেছিলেন।

রক্ষণশীল অ্যাডভোকেসি গ্রুপ ফেইথ অ্যান্ড ফ্রিডম কোয়ালিশনের ওয়াশিংটন কনফারেন্সে ট্রাম্প শত শত সমর্থককে বলেছেন, ‘ইভাঞ্জেলিক্যালস ও খ্রিস্টানরা যতটা ভোট দেয়া উচিত, ততটা দেয় না।’

তিনি বলেন, ‘তারা প্রতি রোববার গির্জায় যায়, কিন্তু তারা ভোট দেয় না।’

মেয়াদের সীমাবদ্ধতার কারণে ট্রাম্প ২০২৮ সালে প্রেসিডেন্ট পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে অযোগ্য হবেন।

পিউ রিসার্চ সেন্টারের মতে, ট্রাম্পের ২০১৬ সালের জয়ের জন্য এবং আবার তার ২০২০ সালের ব্যর্থ প্রচারে ইভাঞ্জেলিক্যাল ভোটাররা গুরুত্বপূর্ণ ছিল, যখন ৮৪ শতাংশ শ্বেতাঙ্গ ধর্মপ্রচারক প্রোটেস্ট্যান্টরা তাকে ভোট দিয়েছিলেন।

ট্রাম্প শনিবার (২২ জুন) তাদের স্বার্থ রক্ষার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, কারণ তিনি ‘কঠোরভাবে’ ধর্মীয় স্বাধীনতা রক্ষার’ প্রতিশ্রতি দিয়েছেন।

তিনি সমর্থকদের বলেন, ‘আমরা আমাদের স্কুলে, আমাদের সামরিক বাহিনীতে, আমাদের সরকারে, আমাদের কর্মক্ষেত্রে, আমাদের হাসপাতালে ও আমাদের পাবলিক স্কয়ারে খ্রিস্টানদের রক্ষা করব।’

তিনি প্রবলভাবে ‘খ্রিস্টান-বিরোধী পক্ষপাতের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য একটি নতুন ফেডারেল টাস্ক ফোর্স’ তৈরি করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন; যা যুক্তরাষ্ট্রের খ্রিস্টানদের ‘অবৈধ বৈষম্য, হয়রানি, নিপীড়ন’ তদন্ত করবে।

গেল মার্চে প্রকাশিত একটি পিউ রিসার্চ সমীক্ষা অনুসারে, প্রায় অর্ধেক (৪৯ শতাংশ) মার্কিনী বিশ্বাস করে যে, যুক্তরাষ্ট্রে ধর্মের প্রভাব কমছে ও খ্রিস্টান হিসেবে চিহ্নিত মার্কিনীদের সংখ্যা ১৯৯০’-এর দশকে প্রায় ৯০ শতাংশ থেকে ২০২২ সালে জনসংখ্যার দুই-তৃতীয়াংশেরও কম হয়ে গেছে, বেশিরভাগই ধর্মীয়ভাবে যুক্ত নয় এমন লোকের সংখ্যা বাড়ছে।

বহু শ্বেতাঙ্গ ইভাঞ্জেলিক্যাল খ্রিস্টানদের জন্য এটি একটি রক্ষণশীল সম্প্রদায় যারা যুক্তরাষ্ট্রের ভোটারদের প্রায় ১৪ শতাংশ, এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ যে, ধর্ম জনজীবনে প্রাসঙ্গিক থাকে।

ট্রাম্প জনতাকে বলেছেন, ‘রাজনৈতিক বামরা ‘আপনাকে নীরব করতে, আপনাকে নিরাশ করতে চায় ও তারা আপনাকে রাজনীতি থেকে দূরে রাখতে চায়।’

‘তারা চায় না যে, আপনি ভোট দিন, সেজন্যই আপনাকে ভোট দিতে হবে’ এ কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আপনি যদি ভোট দেন, তাহলে আমরা পরাজিত হব না।’