রবিবার, ২৬ মে ২০২৪

শিরোনাম

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি পরিষদে ইউক্রেন, ইসরায়েল ও তাইওয়ানের জন্য সহায়তা অনুমোদন

রবিবার, এপ্রিল ২১, ২০২৪

প্রিন্ট করুন

ওয়াশিংটন, যুক্তরাষ্ট্র: যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি পরিষদ শনিবার (২০ এপ্রিল) দ্বিদলীয় ঐক্যের বিরল সমর্থনে ইউক্রেনের জন্য দীর্ঘ বিলম্বিত সামরিক সহায়তার পাশাপাশি ইসরায়েল ও তাইওয়ানের প্রতিরক্ষা শক্তিশালী করতে সহায়তার অনুমোদন দিয়েছে। একই সাথে চীনা মালিকানাধীন টিকটক নিষিদ্ধের হুমকি দিয়েছে। ৯৫ বিলিয়ন ডলারের প্যাকেজের চারটি বিল পর্যায়ক্রমে দ্রুততার সঙ্গে অপ্রতিরোধ্যভাবে অনুমোদিত হয়, যদিও রিপাবলিকান হাউস স্পিকার মাইক জনসনের অবস্থান বিলের ভবিষ্যত কিছুটা সন্দেহের মধ্যে ফেলে দেয়। কারণ, তিনি ক্ষুব্ধ ও ডানপন্থীদের প্রতিরোধের চেষ্টা করেন।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বিবৃতিতে বলেছেন, ‘অনুমোদিত বিল ‘ইসরায়েল ও ইউক্রেনের জন্য জরুরি সহায়তা, গাজা, সুদান, হাইতি ও অন্যান্য স্থানে প্রয়োজনীয় মানবিক সহায়তা এবং ভারত ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতাকে শক্তিশালী করবে।’

তিনি আইন প্রণেতাদের প্রশংসা করে বলেছেন, ‘ইতিহাসের ডাকে সাড়া দিতে’ উভয় দলীয় আইন প্রণেতারা একত্রিত হয়েছেন।’

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি তার দেশের জন্য ৬১ বিলিয়ন ডলার অনুমোদনকে স্বাগত জানিয়ে বলেছেন, ‘সামরিক ও অর্থনৈতিক সহায়তা ‘হাজার হাজার জীবন বাঁচাতে পারে।’

রাশিয়ার প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বলেছেন, ‘এটি যুক্তরাষ্ট্রকে আরো সমৃদ্ধ করবে ও ইউক্রেনকে আরো বেশি ধ্বংস করবে, এমনকি কিয়েভ শাসকের কারণে আরো বেশি ইউক্রেনীয় মারা যাবে।’ রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা তাস এ কথা জানিয়েছে।

শনিবার (২০ এপ্রিল) বিবৃতিতে মার্কিন সিনেটের নেতা চাক শুমার ইঙ্গিত দিয়েছেন, ‘মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের সিনেট বিলটি উত্থাপন করবে। তার চেম্বার দ্রুত কাজ করবে।’

বিলগুলো কয়েক মাসের তীব্র আলোচনা, যুক্তরাষ্ট্রের মিত্রদের চাপ ও ভলোদিমির জেলেনস্কির সহায়তার জন্য বার বার অনুরোধের ফসল।

যুক্তরাষ্ট্র রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধে ইউক্রেনের প্রধান সামরিক সমর্থক। কিন্তু, কংগ্রেস প্রায় দেড় বছর ধরে তার মিত্রের জন্য বড় আকারের তহবিল অনুমোদন করেনি।

বাইডেন ও কংগ্রেসের ডেমোক্র্যাটিক আইনপ্রণেতারা কয়েক মাস ধরে ইউক্রেনের জন্য একটি বড় নতুন অস্ত্র প্যাকেজের জন্য চাপ দিচ্ছেন।

রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের দ্বারা প্রভাবিত রিপাবলিকান আইনপ্রণেতারা টানা সংঘাতের জন্য কিয়েভকে তহবিল দিতে নারাজ।

আগামী নভেম্বরে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পূর্বে যুদ্ধের অর্থায়ন বিতর্কের একটি ব্যাপার হয়ে উঠেছে; যা ফের ট্রাম্পের বিরুদ্ধে বাইডেনকে মুখোমুখি দাঁড় করাবে বলে মনে করা হচ্ছে।
রিপাবলিকান হাউস স্পিকার মাইক জনসন কয়েক মাস দ্বিধাদ্বন্ধের পর অবশেষে ইউক্রেনের জন্য সহায়তা প্যাকেজের পিছনে তার সমর্থন দেন।

মাইক জনসন বলেন, ‘এটা স্পষ্ট করে বলতে গেলে, আমি যুক্তরাষ্ট্রের ছেলেদের (সেনা) পাঠানোর চেয়ে ইউক্রেনে বুলেট পাঠাতে চাই।’

হোয়াইট হাউস বলেছে, ‘তাদের নেতৃত্বের ও আমাদের জাতীয় নিরাপত্তাকে প্রথমে রাখার জন্য তাদের ধন্যবাদ জানাতে’ শনিবারের ভোটের পর জনসন ও তার ডেমোক্র্যাটিক প্রতিপক্ষ হাকিম জেফ্রিজের সঙ্গে বাইডেন কথা বলেছেন।

বাইডেনের অনুরোধে, একটি বিলের অধীনে প্রায় আট বিলিয়ন ডলার সাবমেরিন অবকাঠামোতে বিনিয়োগের মাধ্যমে উন্নয়নশীল দেশগুলোতে নির্মিত প্রকল্পগুলোতে চীনের সঙ্গে প্রতিযোগিতা বাড়ানোর মাধ্যমে চীনকে মোকাবেলা করতে ব্যবহার করা হবে।

তাইওয়ানের অস্ত্রের জন্য কয়েক বিলিয়ন ডলার দেয়া হচ্ছে। শনিবার (২০ এপ্রিল) পাস হওয়া বিলগুলোর প্রথমটি সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম টিকটককে তার চীনা মূল সংস্থা বাইটড্যান্স থেকে বিচ্ছিন্ন করতে বাধ্য করবে বা যুক্তরাষ্ট্রে দেশব্যাপী নিষেধাজ্ঞার মুখোমুখি হবে, যেখানে এটির প্রায় ১৭০ মিলিয়ন ব্যবহারকারী রয়েছে।

গাজায় হামাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের ঐতিহাসিক মিত্র ইসরায়েলের জন্য মোট ১৩ বিলিয়ন ডলার সামরিক সহায়তা বরাদ্দ করা হয়েছে। এ অর্থ মূলত ইসরায়েলের আয়রন ডোম বিমান প্রতিরক্ষা শক্তিশালী করতে ব্যবহার করা হবে।

আইনে বলা হয়েছে, ‘গাজায় মানবিক সহায়তার জন্য এবং পৃথিবীর অন্যান্য দূর্বল জনসংখ্যার জন্য জরুরি প্রয়োজন’ মোকাবেলায় নয় বিলিয়নেরও বেশি বরাদ্দ করা হবে।’

ন্যাটো, ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও জার্মানির কর্মকর্তারা হাউসে ইউক্রেন বিল পাসকে স্বাগত জানিয়েছেন।