রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪

শিরোনাম

যুক্তরাষ্ট্রে দর্শকদের পরান কেড়েছে ‘পরান’ সিনেমা; চতুর্থ সপ্তাহে চলবে ২২ হলে

রবিবার, অক্টোবর ১৬, ২০২২

প্রিন্ট করুন

নিউইয়র্ক, যুক্তরাষ্ট্র: যুক্তরাষ্ট্রে রিলিজের পর থেকে দর্শকদের মন জয় করে চলেছে আলোচিত চলচ্চিত্র ‘পরান’। গত ঈদুল আজহায় লাইভ টেকনোলজিস প্রযোজিত রায়হান রাফি পরিচালিত ‘পরান’ চলচ্চিত্রটি মুক্তি পায়। যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় ৮৫ শহরে ‘পরান’ সিনেমাটি প্রদর্শনের মাধ্যমে রেকর্ড গড়তে যাচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্রে চলচ্চিত্রটির পরিবেশক বায়োস্কোপ ফিল্মসের কর্ণধার রাজ হামিদ বলেন, ‘পরান’ সিনেমাটি যুক্তরাষ্ট্রের দর্শকদের ‘পরান’ কেড়েছে। চতুর্থ সপ্তাহে দর্শকের ব্যাপক আগ্রহে ২২টি হলে চলচ্চিত্রটি চলবে। এ তালিকায় রয়েছে আগাস্টা/জর্জিয়া, টাম্পা/ফ্লোরিডা, রিনো ও লাস ভেগাস/নেভাডা, সল্ট লেক সিটি/ঊটাহ, ইন্ডিয়ানাপোলিস/ইন্ডিয়ানা– এ নতুন শহরগুলোর থিয়েটারে।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমরা এমন কিছু শহরে ‘পরান’ নিয়ে যাচ্ছি, যেখানে এর আগে বাংলা চলচ্চিত্র দেখানো হয় নি। যেমন- রিনো/নেভাডা; ট্রাসভীল/এলাবামা; পুগকিপ্সী/নিউইয়র্ক ও আগাস্টা/জর্জিয়া- এ শহরগুলো অন্যতম। এটা সত্যিই বাংলা চলচ্চিত্রের জন্য বিশাল পাওয়া।’

এর আগে জ্যামাইকা, নিউইয়র্ক, অরল্যান্ডো, ব্রানসউইক, মানাসাস, ডালাস, অস্টিন, হিউস্টন, আটলান্টা, বাল্টিমোর সান ফ্রান্সিসকো, নিউ জার্সি, ভার্জিনিয়া, টেক্সাস, ফ্লোরিডা, ক্যালিফোর্নিয়া, জর্জিয়া, ম্যারিল্যান্ড, পেনসিলিভেনিয়া, কানেকটিকাট অঙ্গরাজ্যের বিভিন্ন শহরে দর্শকরা অগ্রিম টিকিট কেটে ‘পরান’ সিনেমা উপভোগ করেছে।

বায়োস্কোপ ফিল্মসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রুবনা রশিদ বলেন, ‘প্রতিদিনই বিভিন্ন শহর থেকে দর্শকরা ‘পরান’ ছবিটি দেখার আগ্রহ জানাচ্ছেন। তাদের আগ্রহে আমরা যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন শহরে বাংলা সিনেমা দেখানোর উৎসাহ পাচ্ছি। এভাবেই এক দিন বাংলা সিনেমা ঘুরে দাঁড়াবে।’

এ দিকে, সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমে দেখা গেছে, যুক্তরাষ্ট্রের দর্শকরা সিনেমা হলে গিয়ে ‘পরান’ ছবির পোস্টারের সাথে ছবি তুলছেন। সিনেমায় শরীফুল রাজের অভিনয়ের প্রশংসা করেছেন দর্শকরা। শুধু তাই নয়, ওসি চরিত্রে নাসির উদ্দিন খানের অভিনয়ও দর্শক উপভোগ করেছেন। এ ছাড়া মিম ও ইয়াশ রোহানের অভিনয় দর্শকের মন ছুঁয়েছে। সিনেমাটির চল নিরালায় গানটি এখন সবার মুখে মুখে।

‘পরান’ সিনেমাটিতে আরো অভিনয় করেছেন রাশেদ মামুন অপু, শহীদুজ্জামান সেলিম, রোজী সিদ্দিকী, শিল্পী সরকার।