শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪

শিরোনাম

যুক্তরাষ্ট্রে হোটেলে আগুন, দৌড়ে নেমে প্রাণে বাঁচেন চঞ্চল-শ্রাবন্তী-স্বস্তিকা-সোহিনীরা

রবিবার, জুলাই ৭, ২০২৪

প্রিন্ট করুন

শিকাগো, যুক্তরাষ্ট্র: বাংলা চলচ্চিত্রের একঝাঁক তারকা এখন যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করছেন। ৪৪তম নর্থ আমেরিকা বেঙ্গলি কনফারেন্সে (এনএবিসি) যোগ দিতেই তাদের এ সফর। কিন্তু, শিকাগো সিটির যে পাঁচ তারকা হোটেলে উঠেছেন তারা; সেই হোটেলে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়েন সকলে।

শিকাগোর একটি পাঁচ তারকা হোটেলে উঠেছেন অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী, অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চ্যাটার্জি, স্বস্তিকা মুখার্জি, মমতা শঙ্কর, সোহিনী সরকার, তনুশ্রী, পরিচালক অরিন্দম শীলসহ অনেকে। তারা হোটেলটির ৫-৬ তলায় উঠেছেন। শনিবার (৭ জুলাই) ভোর পাঁচটার দিকে আচমকা ফায়ার অ্যালার্ম বাজতে থাকে। এতে আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়েন সকলে। তবে, ফায়ার সার্ভিসের টিম এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

শ্রাবন্তী চ্যাটার্জি থেকে চঞ্চল চৌধুরী- প্রাণ বাঁচানোর দৌড়ে শামিল ছিলেন সকলে। যুক্তরাষ্ট্র থেকে ভারতীয় একটি সংবাদ মাধ্যমে পরিচালক অরিন্দম শীল বলেন, ‘ভাল করে চোখ মেলতে পারিনি। আচমকা অ্যালার্মের শব্দে ধড়মড়িয়ে উঠে বসি। খাটে রাজ্যের জিনিসপত্র ছড়ানো। কিন্তু গোছাবে কে? আগে জিনিস না আগে প্রাণ?’

পরিস্থিতি এমন ছিল যে, গরম পোশাক গায়ে জড়ানোর সময়টুকুও পাননি তারা। ওই অবস্থাতেই পাঁচ তলা থেকে এক তলায় নেমে আসেন অরিন্দম শীল। তবে বিপাকে পড়েছিলেন প্রবীণ অভিনেত্রী মমতা শঙ্কর। এ ব্যাপারে অরিন্দম শীল জানান, সবচেয়ে খারাপ অবস্থা ছিল মমতা শঙ্করের। তিনি না পারছিলেন সিঁড়ি ভাঙতে, না পারছিলেন কোথাও দাঁড়াতে। ব্যথা নিয়ে কোনমতে এক পা এক পা করে সিঁড়ি বেয়ে নিচে নামেন।

সস্ত্রীক যুক্তরাষ্ট্রের ওই হোটেলে ছিলেন পরিচালক কৌশিক গাঙ্গুলি। তিনি সংবাদ মাধ্যমটিকে বলেন, ‘আমরা সকলে হইহই করতে করতে সিঁড়ি দিয়ে নামলাম। প্রত্যেকে কিংকর্তব্যবিমূঢ়। সবার একটাই চিন্তা, যে করেই হোক প্রাণে বাঁচতে হবে।’