মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪

শিরোনাম

লকারবি বিমান হামলা/৩৪ বছর পর সন্দেহভাজন আসামি যুক্তরাষ্ট্রের হেফাজতে

সোমবার, ডিসেম্বর ১২, ২০২২

প্রিন্ট করুন

ডেস্ক রিপোর্ট: আলোচিত লকারবি বিমান হামলার এক সন্দেহভাজন আসামিকে হেফাজতে নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। সন্দেহাভাজন ওই ব্যক্তি লিবিয়ার নাগরিক ও তার নাম আবু আগিলা মুহাম্মদ মাসুদ। খবর আনাদলু এজেন্সি ও বিবিসির।

১৯৮৮ সালের ২১ ডিসেম্বর অর্থাৎ প্রায় ৩৪ বছর আগে স্কটল্যান্ডের লকারবির আকাশে প্যান আমেরিকান বিমান সংস্থার একটি ফ্লাইট বোমা দিয়ে উড়িয়ে দেয় সন্ত্রাসীরা। সেই হামলারই এক সন্দেহভাজন আসামি মাসুদ।

মাসুদের গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে স্কটল্যান্ডের ক্রাউন অফিস অ্যান্ড প্রোকিউরেটর ফিসক্যাল সার্ভিসের মুখপাত্র বলেছেন, ‘লকারবি বোমা হামলায় যারা নিহত হয়েছেন, তাদের পরিবারের সদস্যদের জানানো হয়েছে যে, আবু আগিলা মুহাম্মদ মাসুদ যুক্তরাষ্ট্রের হেফাজতে রয়েছেন। 

ওই মুখপাত্র আরো বলেন, ‘স্কটল্যান্ডের কৌসুঁলি ও পুলিশ যুক্তরাষ্ট্র এবং যুক্তরাজ্য সরকারের সাথে কাজ করে যাচ্ছে যাতে এ বিষয়ে অধিকতর তদন্ত চালিয়ে যাওয়া যায়। পাশাপাশি মূল হোতা আল-মেগরাহির সাথে যারা ওই হামলায় জড়িত ছিল, তাদের বিচারের আওতায় এনে ন্যায়বিচার করা সম্ভব হয়। 

লকারবিতে সংঘটিত প্যান আমেরিকান বিমান সংস্থার নিউইয়র্ক থেকে লন্ডনগামী বোয়িং-৭৪৭ মডেলের বিমানটি বোমা হামলায় সে সময় ২৭০ জনের মৃত্যু হয়। হামলার সময় বিমানটিতে যাত্রী ও ক্রু মিলিয়ে ২৫৯ জন ছিলেন। বিমানটি লকারবির যে স্থানে ভূপাতিত হয়, সেখানে আরো ১১ জন মারা যান।

লকারবি হামলায় জড়িত থাকার অভিযোগে ২০০১ সালে নেদারল্যান্ডসের এক বিশেষ আদালতে আবদেলবাসেত আল-মেগরাহি নামে এক ব্যক্তি অভিযুক্ত হন। তিনিই একমাত্র ব্যক্তি যাকে ওই হামলার জন্য দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছিল।

নেদারল্যান্ডসের আদালত মেগরাহিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছিলেন। কিন্তু তার ক্যানসার ধরা পড়ার পর ২০০৯ সালে সরকার তাকে সহানুভূতির ভিত্তিতে মুক্তি দেয়। এরপর ২০১২ সালে তিনি লিবিয়ায় মারা যান।

অভিযোগ রয়েছে, লিবিয়ার কারাগারে থাকার সময় মাসুদ মেগরাহির সাথে উড়োজাহাজ হামলার ষড়যন্ত্রে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছিলেন।