শুক্রবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩

শিরোনাম

লক্ষ্মীপুরে গ্রাম পুলিশের নেতৃত্বে সন্ত্রাসী হামলা, প্রবাসীর স্ত্রী ও শিশু আহত

রবিবার, নভেম্বর ১৩, ২০২২

প্রিন্ট করুন

লক্ষ্মীপুর: লক্ষ্মীপুরে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে গ্রাম পুলিশ ফয়েজের নেতৃত্বে ক্যাডার ও সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়ে প্রবাসীর স্ত্রীকে মারধোর ও রক্তাক্ত জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুক্রবার (১১ নভেম্বর) রাতে লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার দুই নম্বর দক্ষিণ হামছাদী ইউনিয়ের দুই নম্বর ওয়ার্ড পশ্চিম নন্দনপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আসকর ব্যাপারী বাড়ীর মৃত নুর মোহম্মদের পুত্র ফয়েজের নেতৃত্বে সন্ত্রাসী হামলায় একই বাড়ীর প্রবাসীর স্ত্রী লিপি আক্তার ও পুত্র লিসান গুরুতর আহত হয়েছে। লিপিকে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতলে নিয়ে গেলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় রেফার করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। তার অবস্থা আশংঙ্খাজনক।

অভিযুক্ত ফয়েজ স্থানীয় গ্রাম পুলিশ।

সরেজমিনে পরির্দশন ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, গত পাঁচ ছয় বছর ধরে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে লিপি আক্তার ও গ্রাম পুলিশ ফয়েজের। ফয়েজ জোর করে লিপি আক্তারের স্বামীর কেনা ও পৈত্রিক সম্পত্তি বসতঘরসহ জোরপূর্বক জবর দখলের অপচেষ্টা করছে। এ নিয়ে গত কয়েক বছর ধরে শালিশী বৈঠক হলেও তা মানছেন না ফয়েজ গংরা।

অভিযোগ রয়েছে, ফয়েজ গ্রাম পুলিশ হওয়ায় এলাকায় প্রভাব বিস্তার করে আসছেন। আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে জমি জবর দখলের জন্য শক্রবার (১১ নভেম্বর) রাতে স্থানীয় ৫০/৬০ জন লোকজনসহ দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে প্রবাসী জাহিদের স্ত্রী লিপি আক্তার ও পুত্র লিসানকে বসতঘরে প্রবেশ করে হামলা করে ফয়েজ।

জানা যায়, হামলার সময় সন্ত্রাসীরা লিপি আক্তারের গলায় থাকা সোয়া দুই ভরি স্বর্ণের চেইন ও নগদ ৭০ হাজার টাকা লুট করে নেয়। ঘরের আসবাবপত্রও ভাংচুর করে। ফয়েজের নেতৃত্বে হামলায় তার স্ত্রী, মো. সেলিম, সাজ্জাদ, শান্ত ও নিলুসহ অজ্ঞাত অস্ত্রধারীরা অংশ নেন।

এ বিষয়ে গ্রাম পুলিশের বক্তব্য জানতে চাইলে তিনি কোন মন্তব্য করতে রাজি হন নি।