মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪

শিরোনাম

লোহিত সাগরে যুক্তরাষ্ট্রের হামলায় দশ হুতি যোদ্ধা নিহত

সোমবার, জানুয়ারী ১, ২০২৪

প্রিন্ট করুন

ইয়েমেন: লোহিত সাগরে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের নৌকা লক্ষ্য করে হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনী। এতে অন্তত দশজন হুতি যোদ্ধা নিহত হয়েছেন। সেই সাথে বিদ্রোহী গোষ্ঠীটির তিনটি নৌকা সাগরে ডুবে গেছে। ব্যাপারটি নিশ্চিত করে এর প্রতিশোধের ঘোষণা দিয়েছে হুতি। খবর আলজাজিরার।

রোববার (৩১ ডিসেম্বর) প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুসারে, গেল কয়েক দিন ধরেই লোহিত সাগরে উত্তেজনা বিরাজ করছে। পৃথিবীর নানা দেশের বাণিজ্যিক জাহাজে হামলা চালিয়ে আসছে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীরা।

রোববারও (৩১ ডিসেম্বর) একটি পণ্যবাহী জাহাজের নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করে গোষ্ঠীটি। এ সময় লোহিত সাগরে টহলরত যুক্তরাষ্ট্রের সেনারা তাদের নৌকা লক্ষ্য করে হামলা চালায়। এতে অন্তত দশহুতি যোদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। একই সাথে হুতিদের তিনটি নৌকাও সাগরে ডুবে গেছে।

ব্যাপারটি নিশ্চিত করে হুতি জানায়, এ হামলায় বেঁচে যাওয়া চার যোদ্ধা আহত দুইজনকে নিয়ে হোদেইদা বন্দরে পৌঁছেছে। একই সাথে বিদ্রোহী গোষ্ঠীটির এক নেতা এর প্রতিশোধ নেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

এর পূর্বে, বিবৃতিতে যুক্তরাষ্ট্রের সেন্ট্রাল কমান্ড জানায়, রোববার (৩১ ডিসেম্বর) সকালে যুক্তরাষ্ট্রের দুটি যুদ্ধজাহাজে থাকা হেলিকপ্টার থেকে গুলি করে হুতিদের তিনটি নৌকা ডুবিয়ে দেয়া হয়। সকালে পণ্য পরিবহনকারী প্রতিষ্ঠান মায়েরস্ক জাহাজ হাংজু থেকে বিপদসঙ্কেত পাঠানো হয়। তাতে বলা হয়, ‘চারটি ছোট নৌকা আক্রমণ করেছে জাহাজটিকে। এ সময় হুতিদের নৌকা থেকে গুলি ছোড়া হলে যুক্তরাষ্ট্র পাল্টা গুলি ছোড়ে। এতে হুতিদের তিনটি নৌকা ডুবে যায়। অবশ্য অন্য নৌকাটি স্থান ত্যাগ করতে সক্ষম হয়।’

যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনীর তথ্যানুসারে, গেল ১৯ নভেম্বর থেকে আন্তর্জাতিক এ সমুদ্রপথে ২৩ বার বিভিন্ন নৌযানে আক্রমণ করেছে হুতি বিদ্রোহীরা। শনিবার (৩০ ডিসেম্বর) তাদের বেশ কয়েকটি ড্রোন ভূপাতিতের দাবিও করে যুক্তরাষ্ট্র।

ইরান সমর্থিত হুতিদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে ইয়েমেনের বেশিরভাগ ভূখণ্ড। ইসরাইল গাজায় আক্রমণ বন্ধ না করা পর্যন্ত ইসরাইলমুখী বা ফেরত নৌযানে হামলা অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়েছে তারা। হুতিদের হামলা মোকাবিলায় যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বে বেশ কয়েকটি দেশের সামরিক বাহিনী লোহিত সাগরে একটি নিরাপত্তা বলয় তৈরি করেছে।