মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪

শিরোনাম

শুদ্ধাচার পুরস্কার পেলেন চট্টগ্রাম বন্দরের চেয়ারম্যান এম সোহায়েল

মঙ্গলবার, জুন ২০, ২০২৩

প্রিন্ট করুন

চট্টগ্রাম: নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় এবং এর দপ্তর/সংস্থার কর্মকর্তা/কর্মচারীদের মধ্যে শুদ্ধাচার চর্চায় উৎসাহ দেয়ার লক্ষ্যে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় থেকে শুদ্ধাচার পুরস্কার দেয়া হয়। এর অংশ হিসেবে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের (চবক) চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল এম সোহায়েলকে ২০২২-২৩ অর্থ বছরে তার উল্লেখযোগ্য কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ মঙ্গলবার (২০ জুন) নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ে এ পুরস্কার দেয়া হয়। পুরস্কার তুলে দেন নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী এম খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। অনুষ্ঠানে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোস্তফা কামাল, নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের অন্যান্য কর্মকর্তা, নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ সব সংস্থার প্রধান ও চবকের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এম সোহায়েল তার কর্ম জীবনের বিভিন্ন স্তরে কর্মদক্ষতার পরিচয় রেখেছেন। তিনি বাংলাদেশ নৌবাহিনীর নির্বাহী শাখায় ১৯৮৮ এর ১ জানুয়ারি কমিশন পান। কমিশন পাওয়ার পর তিনি দেশে-বিদেশে বিভিন্ন কোর্সে অংশ নেন। একজন অ্যান্টি সাবমেরিন ওয়ারফেয়ার স্পেশালিস্ট অফিসার হিসেবে তিনি বাংলাদেশ নৌবাহিনীতে অবদান রেখেছেন। তিনি কানাডা থেকে ওয়ার গেম সিমুলেশন কোর্সে, ডিফেন্স সার্ভিসেস কমান্ড অ্যান্ড স্টাফ কলেজ, ঢাকা থেকে নেভাল স্টাফ কোর্সে ও ভারতের ডিফেন্স সার্ভিসেস স্টাফ থেকে নেভাল স্টাফ কোর্সে অংশ নেন।

নৌবাহিনীর একজন পেশাদার কর্মকর্তা হিসেবে তিনি বিভিন্ন স্তরে স্টাফ ও নির্দেশনামূলক দায়িত্ব পালন করেছেন। যেমন- সদর দপ্তর ও এরিয়া সদর দফতরের স্টাফ অফিসার, পরিচালক, জুনিয়র স্টাফ কোর্স, ওয়ারফেয়ার ইন্সট্রাক্টর ইন স্কুল অফ মেরিটাইম ওয়ারফেয়ার অ্যান্ড ট্যাকটিকস, ডাইরেক্টিং স্টাফ ও সিনিয়র ইন্সট্রাক্টর (নৌ), ডিফেন্স সার্ভিসেস কমান্ড অ্যান্ড স্টাফ কলেজ। তিনি সুদানে জাতিসংঘ মিশনেও দায়িত্ব পালন করেছেন। সেবায় অসামান্য পারফরম্যান্সের জন্য তিনি নৌবাহিনী থেকে ওএসপি ও এনইউপি পদক পান।

মোহাম্মদ সোহায়েল এলিট ফোর্স র‍্যাবে র‍্যাব সদর দফতরের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইং পরিচালকের দায়িত্ব পালন করেন। তার কর্মক্ষমতার জন্য তিনি প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদ পান। তিনি কাউন্টার টেরোরিজম ইন্টেলিজেন্স ব্যুরো, ডিজিএফআই সদর দফতরের অভ্যন্তরীণ বিষয়ক ব্যুরো ও নৌ সদর দফতরের পরিচালক সাবমেরিনের দায়িত্ব পালন করেন। তিনি পায়রা বন্দরের চ্যানেল ড্রেজিংসহ বন্দরের উন্নয়নে অবদান রাখেন।
এম সোহায়েল ২০২৩ এর ২ মে চববের চেয়ারম্যান হিসেবে যোগ দেন ও দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন।