সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪

শিরোনাম

শেখ হাসিনাকে ভারত, চীন ও রাশিয়াসহ বিভিন্ন দেশের অভিনন্দন

মঙ্গলবার, জানুয়ারী ৯, ২০২৪

প্রিন্ট করুন
শেখ হাসিনা

ঢাকা: দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়ী হওয়ায় প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়েছে ভারত, চীন ও রাশিয়াসহ বিভিন্ন দেশ। সোমবার (৮ জানুয়ারি) সকালে গণভবনে শেখ হাসিনার সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করে ভারত, রাশিয়া, চীন, ভুটান, ফিলিপাইন, সিঙ্গাপুর ও শ্রীলংকার রাষ্ট্রদূতরা অভিনন্দন জানান। অভিনন্দন জানিয়েছেন ব্রাজিল ও পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূতও।

নরেন্দ্র মোদির অভিনন্দন: নির্বাচনে জয় অর্জনের জন্য শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়েছে ভারত। একই সাথে একে অপরের জাতীয় উন্নয়নের সমর্থনে দ্বিপক্ষীয় অংশীদারত্বে ‘আরো শক্তিশালী অগ্রগতি ও প্রবৃদ্ধি’ প্রত্যাশা করা হয়েছে। সোমবার (৮ জানুয়ারি) বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার প্রণয় ভার্মা শেখ হাসিনার সাথে সাক্ষাৎ করে ভারত সরকার ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির পক্ষ থেকে উষ্ণ শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান। প্রথম দেশ হিসাবে ভারত এ দিন প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানায়। ভারতীয় হাইকমিশনার আশা প্রকাশ করেন, শেখ হাসিনার সরকারের নয়া মেয়াদে দ্বিপক্ষীয় অংশীদারত্ব আরো জোরদার হবে। রাষ্ট্রদূত বলেন, ‘বাংলাদেশের জনগণের দীর্ঘ দিনের বন্ধুত্বের ভিত্তিতে এবং মুক্তিযুদ্ধে তাদের অভিন্ন আত্মত্যাগে অনুপ্রাণিত হয়ে একটি স্থিতিশীল, প্রগতিশীল ও সমৃদ্ধ জাতির স্বপ্ন বাস্তবায়নে ভারত তাদের সমর্থন অব্যাহত রাখবে।’ এ দিকে, নরেন্দ্র মোদি টুইট বার্তায় বলেন, ‘তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে টানা চতুর্থ মেয়াদে ঐতিহাসিক জয় অর্জন করায় টেলিফোনে কথা বলে অভিনন্দন জানিয়েছেন।’ তিনি বাংলাদেশের জনগণকেও অভিনন্দন জানান ও দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক আরে জোরদারের আশা করেন।

চীনের অভিনন্দন: দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সফলভাবে সম্পন্ন হওয়ায় ও আওয়ামী লীগের বিজয়ে শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত ইয়াও ওয়েন। সোমবার (৮ জানুয়ারি) সকালে রাষ্ট্রদূত ইয়োও চীনা নেতাদের পক্ষ থেকে শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানান। চীনের রাষ্ট্রদূত গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎ করেন। এ সময় দীর্ঘ দিনের প্রতিষ্ঠিত বন্ধুত্বকে এগিয়ে নিতে, পারস্পরিক আস্থা বাড়াতে ও বাস্তবিক সহযোগিতা আরো গভীর করতে চীনা নেতাদের তার সাথে কাজ করার প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেন চীনা রাষ্ট্রদূত। তিনি বলেন, ‘চীন ও বাংলাদেশ উভয়ই উন্নয়ন ও অগ্রগতির একটি গুরুত্বপূর্ণ পর্যায়ে রয়েছে ও আধুনিকীকরণের পথে চীন সর্বদা বাংলাদেশের সবচেয়ে বিশ্বস্ত অংশীদার ও সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য বন্ধু হবে। চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং ও শেখ হাসিনার নির্দেশনায় চীন ও বাংলাদেশ পারস্পরিক শ্রদ্ধা ও দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতার একটি উদাহরণ সৃষ্টি করেছে।’ জাতীয় সার্বভৌমত্ব, স্বাধীনতা ও আঞ্চলিক অখণ্ডতা রক্ষা ও বহিরাগত হস্তক্ষেপের বিরোধিতায় চীন দৃঢ়ভাবে বাংলাদেশকে সমর্থন করবে। চীন ঐক্য ও স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে এবং আন্তর্জাতিক ও আঞ্চলিক ব্যাপারে আরো সক্রিয় ভূমিকা পালনে বাংলাদেশকে সহায়তা করবে বলেও উল্লেখ করেন এই কূটনীতিক। ‘রূপকল্প ২০৪১’ ও ‘সোনার বাংলার’ স্বপ্ন বাস্তবায়নে বাংলাদেশকে সহায়তা করতে চীন প্রতিশ্রুতিবদ্ধ বলেও জানানো হয়। রাষ্ট্রদূত ইয়াও আরো বলেন, ‘চীন বাংলাদেশের সঙ্গে সর্বাত্মক সহযোগিতা জোরদার করতে এবং বাংলাদেশের সাথে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্প্রসারণ, উচ্চ মানের চীন-বাংলাদেশ বেল্ট অ্যান্ড রোড ইনিশিয়েটিভ জোরদার এবং ‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ বাস্তবায়নে অবদান রাখতে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণে প্রস্তুত।

অভিনন্দন জানালেন রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত: দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয় পাওয়ায় প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত আলেক্সান্ডার মন্টিটাস্কি। সোমবার (৮ জানুয়ারি) সকালে গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করে এ অভিনন্দন জানান তিনি।

স্বরচিত কবিতা পাঠ করলেন ফিলিপাইনের রাষ্ট্রদূত: নিরংকুশ বিজয় অর্জনে শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন ফিলিপাইনের রাষ্ট্রদূত লিও টিটো এল আউসান জেআর। সোমবার (৮ জানুয়ারি) গণভবনে সাক্ষাৎ করে ফুল দিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান রাষ্ট্রদূত। এ সময় তিনি প্রধানমন্ত্রীকে স্বরচিত কবিতা পাঠ করে শোনান। বঙ্গবন্ধুর কনিষ্ঠ কন্যা শেখ রেহানা ও নাতনি সায়মা ওয়াজেদ পুতুল এ সময় উপস্থিত ছিলেন।