বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪

শিরোনাম

সারা দেশের মানুষ এক দুর্বিষহ জীবনযাপন করছে

বুধবার, আগস্ট ২৪, ২০২২

প্রিন্ট করুন

চট্টগ্রাম: জ্বালানি তেল, সার, পরিবহন ভাড়া ও নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রীর দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে সারা দেশে বৃহস্পতিবার (২৫ আগস্ট) অর্ধ দিবস হরতালে দেশবাসীকে রাজপথে নেমে আসার আহবান জানিয়েছেন চট্টগ্রাম জেলা বাম গণতান্ত্রিক জোটের নেতারা।

বুধবার (২৪ আগস্ট) সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম সিটর পুরাতন রেলওয়ে স্টেশন চত্বরে হরতালের সমর্থনে সমাবেশ থেকে তারা এ আহবান জানান। সমাবেশ শেষে একটি মশাল মিছিল সিটির বিভিন্ন সড়কে প্রদক্ষিণ করে।

বাম গণতান্ত্রিক জোট চট্টগ্রাম জেলার সমন্বয়ক শফিউদ্দিন কবির আবিদের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য দেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি চট্টগ্রাম জেলার সভাপতি অশোক সাহা, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দলের (বাসদ) চট্টগ্রাম জেলার ইনচার্জ আল কাদেরী জয়, বাসদ (মার্কসবাদী) চট্টগ্রাম জেলার সদস্য জাহেদুন্নবী কনক। সমাবেশ পরিচালনা করেন বাসদ চট্টগ্রাম জেলার সদস্য রায়হান উদ্দিন।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, ‘সরকার বর্তমান সংকটে মানুষ বাঁচাতে দায়িত্বশীল আচরণ না করে নিত্য পণ্যের দাম বাড়িয়েই চলেছে। সম্প্রতি মোটা চালসহ চালের দাম অস্বাভাবিকভাবে বেড়েছে। সয়াবিন তেলের দাম বাড়ানো হয়েছে। জ্বালানি তেল ও সারের মূল্যবৃদ্ধির প্রভাবে সর্বত্র মূল্যবৃদ্ধি মানুষের জীবনকে একেবারেই অতিষ্ঠ করে তুলছে। এরপর এ মূল্যবৃদ্ধি মানুষ কোনভাবেই সহ্য করতে পারছে না। সারা দেশের মানুষ এক দুর্বিষহ জীবনযাপন করছে। আমরা ধারাবাহিক লড়াই-সংগ্রামের মধ্যে আছি, হরতাল আহবান করেছি। সারা দেশের মানুষ আমাদের কর্মসূচির প্রতি স্বতঃস্ফূর্ত সমর্থন ব্যক্ত করেছে। এর মধ্যে পানির দাম সেপ্টেম্বর থেকে ফের বাড়ানোর ঘোষণা দিয়ে রেখেছে। বিদ্যুতের দাম বাড়ানোরও পাঁয়তারা চলছে। মূল্যবৃদ্ধির যাতাকলে সারা দেশে শ্রমজীবী মানুষই সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।’

বক্তারা আরো বলেন, ‘আজকে সরকার তার সব প্রকার দূর্নীতি ও লুটপাটের ভার চাপিয়ে দিচ্ছে জনগণের উপর। তাই এ অন্যায়, দুঃশাসন ও লুটপাটের বিরুদ্ধে দরকার জনগণের সম্মিলিত প্রতিরোধ।’

বক্তারা এ সম্মিলিত প্রতিরোধের ধারবাহিকতায় ও জ্বালানী তেল, সার, পরিবহন ভাড়াসহ সব প্রকার নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার (২৫ আগস্ট) বাম গণতান্ত্রিক জোট আহুত আধাবেলা হরতালে সর্বস্তরের জনগণকে অংশগ্রহণের আহবান জানান।