শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

শিরোনাম

সাশ্রয়ী দামে সমৃদ্ধ অভিজ্ঞতা দিচ্ছে স্যামসাং গ্যালাক্সি এম১২

বুধবার, মার্চ ২২, ২০২৩

প্রিন্ট করুন

ঢাকা: স্যামসাং গ্যালাক্সি এম১২ ডিভাইসে অনন্য ফিচার হিসেবে এর ব্যাক কাভারে যুক্ত করা হয়েছে ডায়াগোনাল লাইন। যা এক দিকে ব্যাক কাভারের সৌন্দর্য বাড়াবে, ফের গ্রিপ হিসেবেও চমৎকার কাজ করবে। ডিভাইসটি বাজেট-সাশ্রয়ী হওয়ার পরও, এর আকর্ষণীয় ডিজাইন আপনাকে রীতিমত প্রিমিয়াম ফোন ব্যবহারের অভিজ্ঞতা দিবে। তাছাড়া, ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ৯০ হার্জ রিফ্রেশ রেটের মত উন্নত ফিচার, যা সাধারণত বাজেট-সাশ্রয়ী ফোনে দেখা যায় না।

ডিভাইসটিতে আরো ব্যবহার করা হয়েছে ছয় দশমিক পাঁচ ইঞ্চির এইচডি+ (৭২০x১৬০০) ডিসপ্লে। যে কোন অ্যাপ্লিকেশনে স্বাচ্ছন্দ্যময় স্ক্রল নিশ্চিত করবে দুর্দান্ত এ রিফ্রেশ রেট ও ডিভাইসটির এক্সিনোস ৮৫০ চিপসেট। সারাক্ষণই ব্যস্ত থাকেন এমন ব্যবহারকারীদের জন্য যে কোন ব্যক্তিগত বা অফিশিয়াল কাজে দ্রুত ও নিরবচ্ছিন্ন অগ্রগতি নিশ্চিত করবে এ ডিভাইস। ফোনটির ফিঙ্গারপ্রিন্ট রিডার সুবিধাটি ডানপাশে রাখায় ব্যবহারকারীরা খুব সহজেই তাদের আঙুল ব্যবহার করে ফোনটি চালু করতে পারবেন। পাশাপাশি, ব্যবহারকারীদের জন্য সফটওয়্যার-ভিত্তিক ফেস রিকগনিশন সুবিধা তো থাকছেই।

স্যামসাং গ্যালাক্সি এম১২ ডিভাইসটিতে রয়েছে কোয়াড-ক্যামেরা সেটআপ। এ সেটআপে রয়েছে – ৪৮ মেগা পিক্সেল ওয়াইড, পাঁচ মেগা পিক্সেল আলট্রাওয়াইড, দুই মেগা পিক্সেল ম্যাক্রো ও দুই মেগা পিক্সেল ডেপথ ক্যামেরা। ৪৮ মেগা পিক্সেলের ওয়াইড ক্যামেরা ব্যবহারকারীদের চমৎকার ছবি তোলার নিশ্চয়তা দিবে। হাই আর্টিফিসিয়াল লাইটিংয়ের কারণে এমনকি রাতের বেলায় তোলা ছবিগুলোও নিখুঁত হবে। কিছুটা উষ্ণতর টোন দেয়ার উপযোগী করে ক্যামেরাগুলো প্রস্তুত করা হয়েছে, যেন ছবি তোলার ক্ষেত্রে বিশেষৎ পোর্ট্রেট ছবি তোলার ক্ষেত্রে অভিজ্ঞতা হয় গতানুগতিকের তুলনায় অনেকটাই প্রাণবন্ত। এছাড়া, ডিভাইসটিতে ক্যামেরাপ্রেমীদের দেবে দুর্দান্ত বোকেহ শটেরও নিশ্চয়তা।

জমকালো ছবি তোলা নিশ্চিত করতে ডিভাইসটিতে ব্যবহার করা হয়েছে আট মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা। পাশাপাশি, মেইন ক্যামেরা দিয়ে ফুল এইচডি ও ৩০ এফপিএসে (ফ্রেমস পার সেকেন্ড) ভিডিও রেকর্ড করা যাবে, যা সাধারণত বাজেট-সাশ্রয়ী ফোনগুলোতে দেখা যায় না। ব্যবহারকারীরা তাদের পছন্দ অনুযায়ী ওয়াইড অ্যাংগেল বা মেইন লেন্স বাছাই করে নিয়ে এরপর রেকর্ড শুরু করতে পারবেন।
যারা ফোনে গেমস খেলতে ভালবাসেন, তাদের জন্য কল অব ডিউটি বা অ্যাসফাল্ট ৯ এর মত ভারী গেমসেও ল্যাগবিহীন অভিজ্ঞতার নিশ্চয়তা দিচ্ছে এ ডিভাইস। এছাড়া, ডিভাইসটিতে ব্যবহার করা হয়েছে আট ন্যানোমিটার চিপসেট, চার জিবি এলপিডিডিআর৪ র‍্যাম ও ৬৪ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। তাছাড়া, মাইক্রোএসডি কার্ড স্লটের মাধ্যমে ফোনের স্টোরেজ এক টেরাবাইট পর্যন্ত বাড়িয়ে নেয়ারও সুযোগ রয়েছে। ফলে, হারাতে হবে না মূল্যবান কোন ফাইল। গ্যালাক্সি এম১২ ফোনটিতে আরো ব্যবহার করা হয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ১৩ ও ওয়ান ইউআই কোর ৫.০।

ডিভাইসটি ছয় হাজার মিলি অ্যাম্পিয়ারের শক্তিশালী ব্যাটারি ব্যবহারকারীদের দিনভর ফোন চার্জ দেয়ার ঝামেলা থেকে মুক্ত রাখবে। ১৫ ওয়াটের চার্জারের কারণে মাত্র আড়াই ঘণ্টার মধ্যেই ফোনটি পুরোপুরি চার্জ হয়ে যাবে। পাশাপাশি, এন্টারটেইনমেন্টের অভিজ্ঞতা আরো সমৃদ্ধ করতে ডিভাইসটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ডলবি অ্যাটমোস স্পিকার। অনবদ্য সব ফিচারের পাশাপাশি স্টাইলিশ কোন স্মার্টফোন পেতে চান, তবে স্যামসাং গ্যালাক্সি এম১২ ডিভাইসটি আপনার জন্য একদম যথার্থ। দেশের বাজারে ডিভাইসটি এখন ব্লু, ব্ল্যাক ও হোয়াইট- এ তিনটি রঙে পাওয়া যাচ্ছে।