শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

শিরোনাম

স্বাধীন দেশের মানুষদের গোলাম বানিয়ে রাখা হয়েছে

বৃহস্পতিবার, মার্চ ২৩, ২০২৩

প্রিন্ট করুন

ঢাকা: স্বাধীনতা অর্জনের মত স্বাধীনতা রক্ষাও একটি চলমান সংগ্রাম। বাংলাদেশের আকাশে শকুনের ছায়া, সীমান্তে মানুষ হত্যা হচ্ছে। স্বাধীনতা যুদ্ধের চেতনা, গণতন্ত্র বুটের তলায় পিষ্ট লাখো মানুষের রক্তে কেনা বাংলাদেশ। সেই দেশের মানুষের বাকস্বাধীনতা কেড়ে নিয়ে তাদেরকে গোলাম বানিয়ে রাখার অভিযোগ তুলেছেন জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টির (জাগপা) সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা খন্দকার লুৎফর রহমান।

জাগপার প্রতিষ্ঠাতা শফিউল আলম প্রধান কর্তৃক ১৯৭১ সালের ২৩ মার্চ দিনাজপুরে বাংলাদেশের স্বাধীনতার প্রথম পতাকা উত্তোলন উপলক্ষে পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। এর আগে বৃহস্পতিবার (২৩ মার্চ) সকালে বনানী কবরস্থানে শফিউল আলম প্রধানের কবরে পার্টির পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

সভাপতির বক্তৃতায় খন্দকার লুৎফর রহমান আরো বলেন, ‘২০১৮ সালে শুধু বাংলাদেশেই নয়, সারা পৃথিবীতে দিনের ভোট রাতে নেয়ার একটা নজির স্থাপন হয়েছে। রাতের অন্ধকারে কীভাবে ভোট নিতে হয়, তা এ দেশের ১৬ কোটি মানুষসহ সারা বিশ্বকে দেখিয়ে দিয়েছে এ আওয়ামী লীগ সরকার। এ সরকার নিশিরাতের সরকার। মরহুম শফিউল আলম প্রধান ছিলেন অত্যন্ত সাহসী ও বীরত্বপূর্ণ নেতা। আজকে দেশের গণতন্ত্রের এ দুরাবস্থায় তাঁর বড়ই প্রয়োজন ছিল।’

তিনি বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধে শফিউল আলম প্রধানের অবদান অনস্বীকার্য। তিনি সেদিন পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে তার নিজ জেলা দিনাজপুরে প্রথম বাংলাদেশের পতাকা উত্তোলন করেন। আমরা যে স্বপ্ন নিয়ে যুদ্ধ করেছিলাম, আজো তা বাস্তবায়ন হয়নি। বিশেষ করে গণতন্ত্রের জন্য। গণতন্ত্রের বাহন হল সুষ্ঠু নির্বাচন। কিন্তু, এ আওয়ামী লীগ সরকার নির্বাচনকে নির্বাসনে পাঠিয়েছে।’

সভায় উপস্থিত ছিলেন জাগপার সাধারণ সম্পাদক এসএম শাহাদাত, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আওলাদ হোসেন শিল্পী, সাইফুল আলম, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক আবুল হোসেন, নগর জাগপার সভাপতি মো. হোসেন মোবারক, সাধারণ সম্পাদক মো. নজরুল ইসলাম, যুব জাগপার সভাপতি আমির হোসেন আমু, যুবনেতা শেখ আকবর হোসেন, ওসমান শেঠ।