শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪

শিরোনাম

হাসিনার আগমন উপলক্ষে জ্যামাইকায় যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের টাউন হল মিটিং

রবিবার, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২৩

প্রিন্ট করুন

নিউইয়র্ক, যুক্তরাষ্ট্র: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জাতিসংঘের ৭৮তম সাধারণ অধিবেশনে যোগদান উপলক্ষে সংবর্ধনা দিতে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের টাউন হল মিটিং ও কর্মী সভা ১২ সেপ্টেম্বর হয়েছে। জ্যামাইকার খলিল বিরিয়ানি হাউসে টাউন হল এস কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান বলেন, ‘শেখ হাসিনা শুধু বাংলাদেশের নন, তিনি এখন বিশ্ব নেতা। জাতিসংঘে শেখ হাসিনার ভাষণ বিশ্ব মানবতার জন্য কল্যাণকর। সাধারণ অধিবেশনে বিশ্ব নেতারা তার দিকনির্দেশণামূলক ভাষণকে গুরুত্বের সাথে দেন।’

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক এনামের সভাপতিত্বে ও নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ইসমাঈল হোসেন স্বপনের পরিচালনায় হল সভায় বক্তব্য দেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মহিউদ্দিন দেওয়ান, কার্যকরী সদস্য শাহানারা রহমান, জহীর আহমেদ, নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন আজমল, সহ সভাপতি মনির হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক স্বীকৃতি বড়ুয়া, পেনসেলভেনিয়া স্টেট আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি জনি শিকদার, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী যুবলীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য আতিকুর সুজন, বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাবেক সদস্য ওয়াহাব জোয়ার্দ্দার, যুক্তরাষ্ট্র স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাবেক সভাপতি নুরুজ্জামান সরদার, যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগ নেতা সেবুল মিয়া, যুক্তরাষ্ট্র জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি আজিজুল হক খোকন, সাধারণ সম্পাদক জুয়েল আহমেদ, যুবলীগ নেতা আকরামুল হক সাবু, কবি সালেহা ইসলাম প্রমুখ।

মিটিংয়ে বিপুল সংখ্যক জ্যামাইকাবাসী উপস্থিত ছিলেন।

সিদ্দিকুর রহমান বলেন, ‘শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে এক অন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন। সে জন্য পরাজিত শক্তির মধ্যে গাত্রগাহ দেখা দিয়েছে। এ সময় কোন বিভেদ মঙ্গল বয়ে আনবে না।’

তিনি দলীয় নেতা-কর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে সব কর্মসূচি সফলভাবে বাস্তবায়নের আহবান জানান।

সংগঠনের সহ সভাপতি শামসুদ্দিন আজাদ বলেন, ‘সিদ্দিকুর রহমানের নেতৃত্বে আমরা ঐক্যবদ্ধ আছি। আমরা প্রধানমন্ত্রীকে বরণ করতে প্রস্তুত।’

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ দলীয় কর্মসূচি তুলে ধরে প্রতিটি কর্মসূচির সফল বাস্তবায়নে সব পর্যায়ের নেতাকর্মীদের সহায়তা কামনা করেন।

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক নিজাম চৌধুরী বলেন, ‘রাজনীতিতে শিষ্টাচার থাকা অতি প্রয়োজন। নেতাকে সম্মান না করে কোন দিন নেতা হওয়া যায়না। বড় মাপের মানুষ হওয়া যায় না। আমাদের প্রধানমন্ত্রী ক্ষমতায় থাকাকালীন ও ক্ষমতার বাইরে থাকাকালীণ ৩৪টি সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছি। আমরা জানি, কিভাবে কি করতে হয়। প্রধানমন্ত্রী যেভাবে চাইবেন, সেভাবেই হবে। আমরা বিশ্বাস করি, স্মরণকালের সেরা সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হবে।’